শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ১০:৩১ অপরাহ্ন

হাসিনা-মোদিকে আম পাঠাচ্ছেন মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৮ জুন, ২০২৩
হাসিনা-মোদিকে আম পাঠাচ্ছেন মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

সুযোগ পেলেই কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় তুলতে ভোলেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। যেকোনো ইস্যুতেই তার নিশানায় থাকেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে হাজারও মতবিরোধ, রাজনৈতিক তিক্ততা থাকা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী মোদীর জন্য সুস্বাদু আম পাঠালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। শুধু ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কাছেই নয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যেও আম উপহার পাঠিয়েছেন মমতা ব্যানার্জী।

তৃণমূল সুপ্রিমোর কাছ থেকে আম উপহার পেয়েছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। পাশাপাশি, উপ-রাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়সহ সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের কাছে পশ্চিমবঙ্গের আম উপহার হিসেবে পাঠানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, লক্ষণভোগ, হিমসাগর, ফজলি ও ল্যাংড়া জাতের আমের ডালি সুন্দরভাবে বাক্সবন্দি করে পাঠানো হয়েছে নয়াদিল্লিতে।

অবশ্য এই রেওয়াজ নতুন কিছু নয়। প্রতি বছরই পশ্চিমবঙ্গ থেকে আম পাঠানো হয় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে। প্রায় ১২ বছর ধরে এই রীতি চালিয়ে আসছেন মমতা।

দুই প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও তৃণমূল সুপ্রিমোর কাছ থেকে আম উপহার যাচ্ছে ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু, উপ-রাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, ভারতীয় কংগ্রেসের সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের কাছে।

এছাড়া ভারতের প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যেও উচ্চমানের আম ও সেই সঙ্গে নিজের শুভকামনা পাঠিয়েছেন মমতা ব্যানার্জী।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে প্রায় ১২ বছর ধরে আম পাঠানোর এই রীতি চালিয়ে আসছেন মমতা। সূত্র জানায়, বাছাই করা লক্ষণভোগ, হিমসাগর, ফজলি ও ল্যাংড়া জাতের আমের ডালি সুন্দরভাবে বাক্সবন্দি করে পাঠানো হচ্ছে নয়াদিল্লি এবং ঢাকার উদ্দেশ্যে। বাক্সের ওপর ট্যাগ লাইন হিসাবে লেখা থাকছে ‘পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির তরফে শুভেচ্ছা।’

গত বছরও বাংলাদেশে গিয়েছিল আম উপহার। যার পাল্টা ২৬০টি বাক্সে প্রায় এক হাজার কেজি বাংলাদেশের প্রখ্যাত হাড়িভাঙা আম ভারতের প্রধানমন্ত্রী ও বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর জন্য পাঠিয়ে দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কলকাতার বাংলাদেশ উপদূতাবাস সূত্র জানায়, আম পাঠানোর বিষয় মমতার দপ্তর দূতাবাসে যোগাযোগ করেছে। আগামী এক কিংবা দুই দিনের মধ্যেই আম এসে পৌঁছানোর কথা। যেদিন আম আসবে ওই দিনই আম ঢাকার উদ্দেশ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া