রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশ বা ভারত থেকে এসেছে করোনা: চীনের দাবি শিলটন এখনও ক্ষমা করেননি ম্যারাডোনাকে বিয়েতে জামাইকে একে ৪৭ উপহার শাশুড়ির (ভিডিও) ডাঙ্গা কামদিয়া মসজিদ ও মাদ্রাসা ভাঙার প্রতিবাদে মানববন্ধন যুবলীগ হবে সন্ত্রাস ও দুর্নীতিবাজ মুক্ত: নিক্সন চৌধুরী পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হলেন যারা স্বামীর সাথে বিচ্ছেদ নিয়ে যা বললেন শবনম ফারিয়া প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু রেলসেতুর ভিত্তি স্থাপন করবেন রোববার ম্যারা+ ডোনা = ম্যারাডোনার নামে জমজ দুই বোন নিজের নাম পাল্টে ‘তারা’ রাখলেন দীপিকা! ম্যারাডোনাকে শেষবারের মতো একটু দেখা করোনাভাইরাসের মধ্যেই নোরোভাইরাসের হানা রুপগঞ্জ গাউছিয়ায় হাটের দিনে লক্ষাধিক লোকের সমাগম টাঙ্গাইলে কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ আমতলীতে রোগীর চিকিৎসা করছে ওয়ার্ড বয় পৌরসভা নির্বাচনের দাবিতে আওয়ামী লীগের পথসভা ফরিদপুরে দুই দলের সংঘর্ষে আহত ২০  বদলে যাচ্ছে সদরঘাট ও বুড়িগঙ্গারপার ৮ লাখ টাকা দামের হীরা-মণি-মুক্তাখচিত মাস্ক নেপোলির সবাই ম্যারাডোনা ইউরোপা লীগের ম্যাচে!

বেতনে সংসার চলে না: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন

যোগাযোগ ডেস্ক
আপডেট : মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০
বেতনে সংসার চলে না: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন
ফাইল ছবি

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তিনি যে বেতন পান তা দিয়ে তার সংসার চলে না। জীবনযাপন কঠিন হয়ে পড়ে। এ কারণে তিনি পদত্যাগ করতে চান। আগামী গ্রীষ্মে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করার পরিকল্পনা করছেন।

ছয় সন্তানের লেখাপড়া, সাবেক স্ত্রীর খোরপোষ বাবদ অর্থ প্রদানসহ নানা খাতে অনেক খরচ হয় বরিসের। তবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর সেই খরচ সামলাতে তাকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

বরিস জনসনের কনজারভেটিভ (টোরি) দলের এমপিদের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম মিরর ও মেট্রো ইউকে।

টোরি এমপিরা বলেছেন, বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে অভিযোগ করে আসছেন যে প্রতি বছর তিনি যা বেতন পান তা দিয়ে বেঁচে থাকতে পারবেন না। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বেতন প্রতি বছর এক লাখ ৫০ হাজার ৪০২ পাউন্ড।

তারা জানিয়েছেন, বেতন দিয়ে সংসার না চলার কারণে বরিস জনসন পদত্যাগ করতে চান। তবে তিনি ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন ও করোনা মহামারি সামলানোর জন্য আরও ছয় মাস ক্ষমতায় থাকতে চান।

খবরে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী হয়ে যে টাকা তিনি বেতন পান, আগে তার চেয়ে অনেক বেশি অর্থ তিনি উপার্জন করতেন। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে কলাম লিখেই তিনি বছরে ২ লাখ ৭৫ হাজার পাউন্ড আয় করতেন। এছাড়া মাসে দুটি সেমিনারে বক্তৃতা দিয়ে আয় করতেন প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার পাউন্ড।

আরও পড়ুন :নিউজিল্যান্ডের নির্বাচনে জাসিন্দা বিপুল ভোটে বিজয়ী

খবরে দাবি করা হয়েছে, ছয় সন্তানের লেখাপড়া, সাবেক স্ত্রীর খোরপোষ বাবদ অর্থ প্রদানসহ নানা খাতে অনেক খরচ হয় বরিসের। তবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর সেই খরচ সামলাতে তাকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রেক্সিট সম্পর্কিত সমস্ত সমস্যার সমাধান এবং করোনা পরিস্থিতি দূর হলেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন জনসন।

কথিত আছে যে, বরিস জনসন তার পূর্বসূরি সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে কে ঈর্ষা করছেন। টেরিজা প্রধানমন্ত্রী পদ ছাড়ার পর থেকে সেমিনারে বক্তৃতা দিয়ে এক মিলিয়ন পাউন্ডের বেশি আয় করেছেন।

বরিসের দলের এক এমপি বলেছেন, বরিসের ছয় সন্তান। তারা এখনো পরিবারে আর্থিক সহায়তা করার জন্য যথেষ্ট ছোট। বার্কশায়ারের বিখ্যাত ইটন স্কুলে ছেলে উইলফ্রেডকে পাঠাতে বছরে ৪২ হাজার ৫০০ পাউন্ড ব্যয় করতে হবে জনসনকে।

ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন একটি বক্তৃতার জন্য পান এক লাখ ২০ হাজার পাউন্ড। সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার বক্তৃতা ও পরামর্শ থেকে ২২ মিলিয়ন পাউন্ড আয় করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: