রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১০:৩১ অপরাহ্ন

১০ টাকার কাজে ৫ টাকা ঘুষ দেওয়া চলবে না : পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০২৪
১০ টাকার কাজে ৫ টাকা ঘুষ দেওয়া চলবে না : পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

১০ টাকার প্রকল্পের মধ্যে ৩ থেকে ৫ টাকা ঘুষ দিয়ে বাকি ৫ টাকার কাজ করা; এসব চলবে না। এই রকম অবস্থা শক্ত হাতে দমন করতে হবে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আব্দুস সালাম।

বুধবার (১০ জুলাই) শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আইএমইডি ও বাংলাদেশ পাবলিক প্রকিউরমেন্ট অথরিটির (বিপিপিএ) কর্মকর্তারা মন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তিনি এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রকল্পে ঘুষদানকারীদের শক্তহাতে দমন করতে হবে। ১০ টাকার প্রকল্পের কাজে তিন টাকা বা পাঁচ টাকা ঘুষ দিয়ে, বাকি পাঁচ টাকা দিয়ে কাজ করা চলবে না। এটা আপনাদের চোখে ধরা পড়তে হবে। এ রকম অবস্থায় পড়লে তাদের অত্যন্ত শক্তহাতে দমন করার চেষ্টা করতে হবে আইএমইডিকে।

দেখেশুনে প্রকল্প গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দেখেশুনে প্রকল্প নিতে হবে। সেজন্য আমরা কাজ করছি। আমি সবসময় আইএমইডির প্রতিবেদন দেখি। অনেক পিডি একাধিক প্রকল্পের পরিচালক… ফিজিবিলিটিও স্টাডিও ঠিকমতো হয় না। তিন বছরের প্রকল্প ১১ বছর লাগে, এটা চলবে না।

তিনি আরও বলেন, ভূমি অধিগ্রহণের কাজ আগে করতে হবে। প্রকল্প ধরে বসে থাকলে চলবে না। দ্রুত কাজ করতে হবে। আইএমইডি রিপোর্ট ঠিক না হলে হবে না। আপনারা ঠিকমতো কাজ করবেন। প্রকল্প ঠিক সময়ে, কোয়ালিটিভাবে বাস্তবায়ন করে জনগণকে সুবিধা দিতে হবে। তবে, প্রকল্প শেষ করা বিরাট বিষয়। কিছু কিছু বিষয়ে আমাদের হাত নেই। জমি অধিগ্রহণ ও ডলার পরিস্থিতিতে অনেক সময় প্রকল্প সংশোধন হচ্ছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, কথায় কথায় প্রকল্পের মেয়াদ ও ব্যয় বাড়ানো চলবে না। এটা ভালোভাবে মনিটরিং করতে হবে। কোনো প্রকল্পের মেয়াদ ও সময় বৃদ্ধির জন্য যখন আমার কাছে আসে, তখন আমি এগুলো সংশোধনের আগে আইএমইডির প্রতিবেদন দেখে ব্যবস্থা নিয়ে থাকি। কোনোভাবেই কথায় কথায় সময় ও টাকা বাড়ানো চলবে না।

বিপিপিএ-আএইমইডি পরিদর্শনে এসে আব্দুস সালাম বলেন, আজকে এখানে এসেছি আপনাদের কাজ-কর্ম দেখতে, আপনাদের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার জন্য। আমি একটা বিশাল মন্ত্রণালয়ে এসেছি। কাজের ধারা বুঝতে পাঁচ থেকে ছয় মাস লেগেছে। এখন কাজ সম্বন্ধে কিছু বুঝতে পারছি। আজকে মূলত কথা শুনতে এসেছি। প্রকল্পের সবকিছু জানতে হবে। আপনাদের মূল্যায়নে সবকিছু নির্ভর করে। আইএমইডি মূল্যায়নে কাজ করছে। দুই লাখ ৬৫ হাজার কোটির উন্নয়ন বাজেট… আমাদের কষ্টার্জিত অর্থ অপচয় করতে দেব না। অর্ধেকের বেশি বাংলাদেশের টাকা।

এ সময় আইএমইডি সচিব আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন ও বিপিপিএর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সচিব) মো. শোহেলের রহমান চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া