বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন

হবিগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট, দুর্ভোগে যাত্রীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : রবিবার, ১৯ মার্চ, ২০২৩
হবিগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট, দুর্ভোগে যাত্রীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল প্রাঙ্গণে অ্যাম্বুলেন্স পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা ও ‘পুলিশি হয়রানি’ বন্ধসহ ৯ দফা দাবিতে হবিগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ও জেলা অ্যাম্বুলেন্স মালিক-শ্রমিক সমিতির ডাকা অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি চলছে। এতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। শনিবার (১৮ মার্চ) রাতে জরুরি সভা করে পুরো জেলায় পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় সংগঠনটি।

রোববার (১৯ মার্চ) সকাল ৬টা থেকে কর্মবিরতি শুরু হয়েছে। শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করায় সকাল থেকে জেলায় পরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এদিকে, পূর্ব ঘোষণা ছাড়া পরিবহন শ্রমিকদের কর্মবিরতির এমন সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা। পরিবহন না পেয়ে অনেকে হবিগঞ্জ পৌর বাস টার্মিনালে এসে আবার ফিরে যান। কেউ কেউ অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে বিকল্প পরিবহনে গন্তব্যের উদ্দেশ্য রওনা হন।

মাধবপুর যাওয়ার জন্য হবিগঞ্জ পৌর বাস টার্মিনালে আসা একটি ব্যাংকের কর্মকর্তা মো. ফয়েজ উদ্দিন বলেন, সকাল সকাল কর্মস্থলে যাব, এখন এসে দেখি বাস নেই। এভাবে পূর্ব ঘোষণা ছাড়া বাস চালানো বন্ধ রাখা ঠিক না। এতে আমরা সাধারণ যাত্রীরা দুর্ভোগের শিকার হচ্ছি।

কলেজ শিক্ষার্থী রুপা আক্তার বলেন, আমি সিলেটের একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করি। ছুটিতে বাড়ি এসেছিলাম। আজ গিয়ে ক্লাস ধরতে চেয়েছিলাম। কিন্তু বাস চলাচল না করায় যেতে পারছি না।

হবিগঞ্জ জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সজিব আলী বলেন, হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে অন্তত ৪০টি প্রাইভেট অ্যাম্বুলেন্স রোগীদের আনা-নেওয়া করে আসছে। সম্প্রতি হাসপাতাল প্রাঙ্গণে অ্যাম্বুলেন্স পার্কিং নিষিদ্ধ করেছে কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে এক সপ্তাহ ধরে জরুরি সেবা বন্ধ রেখে ধর্মঘট পালন করে আসছে অ্যাম্বুলেন্স চালক-মালিক সমিতি।

তিনি আরও বলেন, তাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে শনিবার (১৮ মার্চ) রাতে জরুরি সভা করে পুরো জেলায় পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ ধর্মঘট চলবে।

জানা যায়, হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ৪০টি প্রাইভেট অ্যাম্বুলেন্স রোগীদের আনা নেওয়া করে আসছে। সম্প্রতি হাসপাতাল এলাকায় অ্যাম্বুলেন্স পার্কিং নিষিদ্ধ করেছে কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে এক সপ্তাহ ধরে জরুরি সেবা বন্ধ রেখে ধর্মঘট পালন করে আসছে অ্যাম্বুলেন্স চালক ও মালিক সমিতি। এদের সঙ্গে একত্রিত হয়ে এবার পুরো জেলায় ধর্মধটের ডাক দিল জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন।

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া