রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাত পোহালেই বন্ধ বাস ট্রেন লঞ্চ লকডাউনের খবরে লঞ্চের ছাদেই কাটছে বাসররাত শুক্রবার থেকেই শুরু হচ্ছে কঠোর বিধি-নিষেধ খালি বাস নিয়ে উত্তরবঙ্গের দিকে যাচ্ছেন চালকরা আবারো ঝড় তুললেন বিশ^কাপ ফুটবলের সেই শাকিরা বিক্রি হয়নি ১৬০০ কেজি ওজনের ষাঁড় ‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’ প্রখ্যাত সাংবাদিক সাইমন ড্রিং আর নেই কোথায় কখন হবে ঈদের জামাত পর্নো ছবি বানানোর অভিযোগে শিল্পা শেঠীর স্বামী গ্রেফতার কমলাপুর রেল স্টেশন লোকে লোকারণ্য বঙ্গবন্ধু সেতুতে একদিনে তিন কোটি টাকা টোল আদায় ১৬০ ফুট পল্টনের রাস্তা হতে না হতেই ধস ২৫ লাখ টাকার ‘মানিক চাঁন’ এখন গাবতলীর হাটে আমেরিকা থেকে ভ্যাকসিন পাওয়ার নেপথ্যে ৪ বাংলাদেশি সড়ক-মহাসড়কে যানজট : ঈদযাত্রায় সীমাহীন দুর্ভোগ সংক্রমণের সঙ্গে ছড়িয়ে পড়েছে বিএনপির মিথ্যাচার ১৫ জুলাই থেকে চলবে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট ঈদে যেসব রুটে ট্রেন চলবে বিধিনিষেধে সাড়া কম : পুরনো রূপে ফেরার পথে ঢাকা ইতালি দুইশ’ মিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগে আগ্রহী

স্বাস্থ্যঝুঁকি ও নৌকাডুবির শংকা : যমুনায় ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল

শামছুর রহমান শিশির, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি
আপডেট : শুক্রবার, ১৪ আগস্ট, ২০২০
স্বাস্থ্যঝুঁকি ও নৌকাডুবির শংকা : যমুনায় ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল
যমুনায় ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল : ছবি যোগাযোগবিডি

করোনার ক্রান্তিকালে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে শাহজাদপুর উপজেলার যমুনা নদীতে ত্রুটিপূর্ণ নৌযানে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে যমুনার চরাঞ্চলের মানুষ।

করোনাভাইরাসের ক্রান্তিকালে উপজেলার যমুনা নদী তীরবর্তী বেশ কয়েকটি খেয়াঘাট থেকে দুর্গম চরাঞ্চলে শ্যালো ইঞ্জিনচালিত ফিটনেসবিহীন নৌকাযোগে সামাজিক দুরত্ব না মেনে ঠাঁসাঠাসি করে নিত্যদিন হাজার হাজার এলাকাবাসী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।

এতে একদিকে যমুনা ও পদ্মা নদীতে নৌকাডুবিতে ব্যাপক প্রাণহানীর মতো ট্রাজেডি ঘটার আশংকা থেকেই যাচ্ছে; অপরদিকে, করোনাভাইরাসের ক্রান্তিকালে এভাবে ঠাঁসাঠাসি করে যাত্রী পরিবহন করায় স্বাস্থ্য ঝূঁকির আশংকাও প্রকাশ করেছে বিজ্ঞমহল। যেন দেখার কেউ নেই।

আরও পড়ুন : করোনা ও বন্যায় শাহজাদপুরের গো-শিল্প সংকটে




 

জানা গেছে, শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী, জামিরতা, কাশিপুর, বেনুটিয়া, জগতলা ও গালা ইউনিয়নের খেয়াঘাটসহ যমুনা নদী তীরবর্তী বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে ফিটনেসবিহীন শ্যালো ইঞ্জিনচালিত অসংখ্য নৌকাযোগে বানতিয়ার, ছোট চামতারা, বড় চামতারা, হাতকোড়া, মুনপুর, রতনদিয়ার, বাঙালা, বৃ-দাশুরিয়া, দাশুরিয়া, ক্ষিদ্র-দাশুরিয়া, শ্রীপুর, ঠুটিয়া, মনাকষা, স্থল, ধীতপুর, মৌকুড়ি, নোহাটা, শোনতোষা, বসন্তপুর, দিঘলকান্দি, ঘাটাবাড়ী, বাঐখোলা, জালালপুর, রূপসী, ঘোরজান, কুরশী, সোনাতনীসহ যমুনার দুর্গম চরাঞ্চলের মানুষ প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।

স্থানীয় অসাধু মাঝি ও নৌ-মালিকেরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের লোভে ধারণক্ষমতার চেয়ে কয়েকগুণ বেশী যাত্রী ও মালামাল নিয়ে ভরা যমুনার বুক দিয়ে চলাচল করছে।

এসব ফিটনেস বিহীন নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী মালামাল বহন করায় একদিকে যেমন জানমালের ক্ষয়ক্ষতির আশংকরা রয়েছে, তেমনি সামাজিক দুরত্ব না মানায় স্বাস্থ্য ঝুঁকিও রয়েছে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহান জানান, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: