শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১২:২১ অপরাহ্ন

সিয়ামকে নিয়ে সিআইডির অভিযানে খাল থেকে হাড়গোড় উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আপডেট : রবিবার, ৯ জুন, ২০২৪
সিয়ামকে নিয়ে সিআইডির অভিযানে খাল থেকে হাড়গোড় উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

ভারতে বাংলাদেশের সংসদ সদস্য (এমপি) আনোয়ারুল আজীম আনার খুনের ঘটনায় আটক সিয়াম হোসেনকে নিয়ে খালে তল্লাশি চালিয়ে হাড়গোড় উদ্ধার করেছে পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি। পরিচয় শনাক্তের জন্য সেগুলো পরীক্ষা করা হবে।

রোববার (৯ জুন) সকালে নৌবাহিনীর ডুবুরি দল ও কলকাতা পুলিশের ডিএমজি টিমের সদস্যদের নিয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ভাঙড়ের সাতুলিয়ার বাগজোলা খালে তল্লাশিতে নামে সিআইডি।

কলকাতার সংবাদমাধ্যম সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংবাদমাধ্যম বলছে, বাংলাদেশের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত মোহাম্মদ সিয়াম হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বাগজোলা খাল থেকে হাড়গোড় উদ্ধার করেছে পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি।

এর মাধ্যমে এমপি আনার হত্যা তদন্তে নতুন মোড় এসেছে। রোববার সকালে সিয়ামকে নিয়ে ভাঙড়ের বিজয়গঞ্জ বাজার থানা এলাকার কৃষ্ণমাটিতে বাগজোলা খালে নামে সিআইডি। তল্লাশির পর একটি ঝোপের পাশ থেকে বেশ কিছু হাড়গোড় উদ্ধার হয়।

হাড়গুলো প্রাথমিক ভাবে দেখে অনুমান করা হচ্ছে, সেগুলো মানুষেরই। যদিও তা আনোয়ারুল আজিমেরই কি না তা এখনও স্পষ্ট নয়। এ জন্য করতে হবে ফরেনসিক পরীক্ষা।

এর আগে নিউটাউনের অভিজাত আবাসিক কমপ্লেক্সের সেপটিক ট্যাংক থেকে ছোট ছোট কিছু মাংসের টুকরো উদ্ধার করেছিল সিআইডি। সেই মাংস কি আনোয়ারুলেরই, তা জানতে ফরেনসিক পরীক্ষা করা হচ্ছে।

সিআইডি কর্মকর্তারা বলছেন, বাগজোলা খাল থেকে উদ্ধার হয়েছে একাধিক হাড়। এগুলো এমপি আনোয়ারুল আজিমের মরদেহের অংশ বলে সিয়ামের দাবি। তবে এই হত্যার ঘটনায় এর আগে আটক ‘কসাই’ জিহাদ হাওলাদার জিজ্ঞাসাবাদে ভিন্ন জায়গায় এমপির মরদেহ ফেলার কথা বলেছিল।

কিন্তু সিয়াম ভিন্ন জায়গার কথা বলেছে। সেই জায়গাতেই আজ তল্লাশি চালিয়ে হাড়গুলো উদ্ধার করা হয়। এগুলো বাংলাদেশের এমপি আনোয়ারুল আজিমের শরীরের হাড় কিনা তা জানতে ফরেনসিক পরীক্ষা করা হবে বলে জানান সিআইডি কর্মকর্তারা।

এ ঘটনায় ঢাকার শেরে বাংলা নগর থানায় মামলা করেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনোয়ারুলের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন।

তাতে তিনি উল্লেখ করেন, ৯ মে রাত ৮টার দিকে তাঁর বাবা ঢাকার মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে এমপি ভবনের বাসা থেকে গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে রওনা হন। ১১ মে বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটে বাবার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বললে কথাবার্তায় কিছুটা অসংলগ্ন মনে হয়। এরপর মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলে বন্ধ পান।

গত ১৩ মে আনোয়ারুলের ভারতীয় নম্বর থেকে হোয়াটসঅ্যাপে একটি ম্যাসেজ আসে। তাতে লেখা ছিল, ‘আমি হঠাৎ করে দিল্লি যাচ্ছি, আমার সঙ্গে ভিআইপি আছে। আমি অমিত শাহের কাছে যাচ্ছি। আমাকে ফোন দেওয়ার দরকার নেই। পরে ফোন দেব।’

পরে আরও কয়েকটি ম্যাসেজ আসে। ম্যাসেজগুলো বাবার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে অপহরণকারীরা করে থাকতে পারে। আনোয়ারুল আজীম ভারতে খুন হয়েছেন বলে বাদী জানতে পেরেছেন। তবে এখনো লাশ পায়নি পরিবার।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, আনোয়ারুল আজীম গত ১২ মে দর্শনা–গেদে সীমান্ত দিয়ে চিকিৎসার জন্য ভারতে যান। বরাহনগরের স্বর্ণ ব্যবসায়ী বন্ধু গোপাল বিশ্বাসের বাড়িতে ওঠেন। কিন্তু ১৬ মে থেকে তাঁর সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে না পারায় নিখোঁজ জানিয়ে ১৮ মে বরাহনগর থানায় জিডি করেন তাঁর কলকাতার বন্ধু গোপাল বিশ্বাস।

গত ২২ মে সকালে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে আনোয়ারুল আজীম আনার খুন হওয়ার খবর আসে। এরপর তাঁর মেয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় অপহরণের পর গুম করার অভিযোগে মামলা করেন।

পশ্চিবঙ্গ পুলিশ বলছে, গত ১৩ মে সঞ্জীবা গার্ডেনে এমপি আনারকে খুন করা হয়। তাকে খুন ও লাশ গোপন করার কাজে যুক্ত ছিলেন এই সিয়াম। নিউটাউনের অভিজাত ওই সঞ্জীবা গার্ডেনের যে সিসিটিভি ফুটেজেও সিয়ামকে দেখা গেছে।

এমপি আনোয়ারুলের মরদেহের ট্রলি ব্যাগ পাওয়া প্রায় অসম্ভব: পশ্চিমবঙ্গ সিআইডিএমপি আনোয়ারুলের মরদেহের ট্রলি ব্যাগ পাওয়া প্রায় অসম্ভব: পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি
সিয়ামকে নেপাল থেকে আটকের পর গতকাল শনিবার পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বারাসাত জেলা ও দায়রা আদালতে তোলা হয়। আদালত আগামী ১৪ দিনের জন্য তাকে সিআইডি হেফাজতে দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৬৪ (হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরণ), ৩০২ (অপরাধমূলক নরহত্যা), ২০১ (তথ্য প্রমাণ লোপাট) এবং ৩৪ (সংঘবদ্ধভাবে অপরাধমূলক কাজ সংঘটিত করা)- এই চার জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দেওয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া