রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১০:২৫ পূর্বাহ্ন

সাহেদের স্বীকারোক্তি, টাকা উপার্জনের জন্যই প্রতারণা

রিপোর্টারের নাম
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক
করোনাভাইরাস নমুনা পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় রিজেন্ট হাসপাতাল ও রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ এবং ওই হাসপাতালের এমডি মাসুদ পারভেজকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

তবে আদালতে পৌঁছানোর আগেই ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে তার সকল প্রতারণার কথা স্বীকার করেছেন।
ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আব্দুল বাতেন বলেন, সাহেদ প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে কোটি কোটি টাকা উপার্জনের জন্য সেসকল প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে।

তবে আমাদের চোখের সামনে যেগুলো প্রতারণা কথা শুনছি। সাহেদের প্রতারণা শুধু এখানেই সীমাবদ্ধ নয় আরো অনেক অভিযোগ আছে। আমরা রিমান্ডে সেগুলো বিস্তারিত জানব।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, সাহেদের হাসপাতাল থেকে বেশ কিছু মেশিন সরিয়ে ফেলা হয়েছে। আমরা সেগুলো উদ্ধার করার চেষ্টা করছি। সেখান থেকেও নতুন একটি প্রতারণার সূত্র পাওয়া যেতে পারে।

এদিকে বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম শুনানি শেষে রিমান্ডের এই আদেশ দেন।
এ ছাড়া সাহেদের আরেক সহযোগী তারেক শিবলীকে আবার সাত দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে। তার ৫ দিনের রিমান্ড শেষে ফের ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়।

এর আগে ডিবির পুলিশ পরিদর্শক গাফফারুল আলম সাহেদ, মাসুদ পারভেজ ও তারেক শিবলীকে আদালতে হাজির করে তাদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত রিমান্ডের আদেশ দেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাহেদকে কঠোর নিরাপত্তা মধ্য দিয়ে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে নেওয়া হয়। এর আগে বুধবার (১৫ জুলাই) সকালে সাতক্ষীরা থেকে আটক করে ঢাকায় আনার পর রাতে তাকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) হাজতখানায় রাখা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: