বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন

সরকারের সঙ্গে ইসি কীভাবে কাজ করবে, জানতে চায় মার্কিন পর্যবেক্ষক দল: সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর, ২০২৩
সরকারের সঙ্গে ইসি কীভাবে কাজ করবে, জানতে চায় মার্কিন পর্যবেক্ষক দল: সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

বাংলাদেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় সরকারের সঙ্গে নির্বাচন কমিশন (ইসি) কীভাবে কাজ করবে তা বিস্তারিত জানতে চেয়েছে আমেরিকার প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দলের প্রতিনিধিরা বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) বেলা ১১টায় নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে এ বৈঠক হয়।

আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সিইসি ছাড়াও অন্য নির্বাচন কমিশনার ও ইসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন। আর ওয়াশিংটনভিত্তিক নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থার প্রাক-নির্বাচন প্রতিনিধিদলে ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট-আইআরআই থেকে বনি গ্লিক, জামিল জাফের, জোহানা কাউ, কার্ল রিক এবং ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ইনস্টিটিউট-এনডিআই থেকে মারিয়া চিন বিনতি আব্দুল্লাহ, মনপ্রিত সিং আনন্দ ও ক্রিগ হলস্টেড উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক-নির্বাচন বিষয়ক পর্যবেক্ষক দল মূলত বাংলাদেশের প্রি-অ্যাসেসমেন্ট করতে এসেছেন। তাদের মূল ফোকাস হলো সুষ্ঠু, স্বাধীন, অংশগ্রহণমূলক এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন।

সিইসি বলেন, ওরা এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল বা সরকারের দপ্তরের সঙ্গে মিটিং করেছে। মূলত এটাকে প্রি অ্যাসেসমেন্ট টিম বলে। আমাদের সঙ্গে যে প্রশ্নগুলো হয়েছে ওরা আমাদের ইলেকশন কমিশনের যে রোল, দায়িত্ব, অ্যাক্টিভিটিজ সম্পর্কে অনেক কিছুই জানতে চেয়েছেন। আমরা সবকিছু তাদেরকে বোঝাতে পেরেছি যে, ইলেকশন কমিশনের রোল, ইলেকশন কীভাবে প্লে করে, গভর্নমেন্টের রোল কতটুকু, ওরা কীভাবে প্লে করে। সরকারের সঙ্গে ইলেকশনের কো-অর্ডিনেশনটা কীভাবে হয় এবং যার মাধ্যমে আমরা পুরো ইলেকট্রোরাল প্রসেসটা তুলে নিয়ে আসি। এটা তাদেরকে জানিয়েছি।

হাবিবুল আউয়াল বলেন, তারা যা যা জানতে চেয়েছিলেন তারা জেনেছেন। এখন ওরা জেনে কি করবেন সেটা আমরা জানি না। এটা ওনারা দেশে ফিরে গিয়ে পর্যালোচনা করে হয়ত সিদ্ধান্ত নেবেন যে, তারা কোনো অবজার্ভার টিম পাঠাবেন কি পাঠাবেন না বা পাঠালে কীভাবে পাঠাবেন।

তাদের মূল ফোকাসটা কি ছিল সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, আমি তো বলেছি-ওরা প্রি ইলেকশন অ্যাসেসমেন্ট করতে এসেছেন। মূল ফোকাসটা হচ্ছে-ফ্রি, ফেয়ার, পার্টিসিপেটরি, পিচফুল ইলেকশন।
তিনি বলেন, নির্বাচনে কমিশনের কী ভূমিকা, কমিশন কীভাবে ভূমিকা রাখে, সরকারের ভূমিকা কতটুকু, তারা কীভাবে ভূমিকা রাখে, সরকারের সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের সমন্বয় কীভাবে হয় এবং যার মাধ্যমে আমরা পুরো নির্বাচী প্রক্রিয়াটা তুলে নিয়ে আসি এটা তাদের জানিয়েছি। তারা যা যা জানতে চেয়েছে, তারা জেনেছে। এখন তারা জেনে কী করবে, সেটা আমরা জানি না। হয়তো উনারা দেশে ফিরে গিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

নির্বাচনে পর্যবেক্ষক দল পাঠানোর বিষয়ে কিছু জানিয়েছে কি না এমন প্রশ্নে সিইসি বলেন, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই। তারা মূল্যায়ন করতে এসেছেন। তাদের মূল ফোকাস হচ্ছে তারা অবাধ-নিরপেক্ষ, অংশগ্রহণমূলক, শান্তিপূর্ণ বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন চায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া