মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৩:২১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শপথ নিলেন কুমিল্লা সিটির মেয়র রিফাত ভারতীয় সিরিয়াল ‘খড়কুটো’ বন্ধ হওয়ার পথে! সৌদি আরব পৌঁছেছেন ৫৮ হাজার ১১৮ জন হজযাত্রী বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় ৭০২ জনের মৃত্যু তাহলে টি-টুয়েন্টিকে বিদায় বলে দিলেন তামিম? আগাম টিকিটে ট্রেনে ঈদযাত্রা শুরু বিআরটিসির ‘ঈদ স্পেশাল সার্ভিস’ চালু ঈদযাত্রায় ডিএমপি ট্রাফিক পুলিশের ১২ নির্দেশনা বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ৫৬৩ ট্রেনের টিকিট পেতে চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা পদ্মাসেতু পার হয়ে প্রথম টুঙ্গিপাড়ায় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে আসছেন প্রিন্স চার্লস সবাইকে ছাড়িয়ে সাকিব গড়লেন নতুন রেকর্ড সাকিবের বিধ্বংসী ইনিংসের পরও বড় হার বাংলাদেশের জেনে নিন টলি সুন্দরীদের কার উচ্চতা কত মোটরসাইকেল চলাচলে নতুন বিধিনিষেধ পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচলের সম্ভাবনা কম: মন্ত্রিপরিষদ সচিব ভাড়া কমিয়েও যাত্রী পাচ্ছে না লঞ্চ ঝালকাঠিতে মাটি খুড়তেই বেরিয়ে এলো গুপ্তধন ট্রেনের আগাম টিকিট কিনতে তৃতীয় দিনের ‘যুদ্ধ’

রেলওয়ের পাহাড়ে ৩ হাজারের বেশি পরিবারের বাস

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
আপডেট : বুধবার, ২২ জুন, ২০২২
রেলওয়ের পাহাড়ে ৩ হাজারের বেশি পরিবারের বাস
সংগৃহীত ছবি

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান ভূমি কর্মকর্তা সুজন চৌধুরী বলেছেন, রেলওয়ের মালিকানাধীন চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন পাহাড়ে অবৈধভাবে তিন হাজারের বেশি পরিবার বসবাস করে। আমরা তাদের তালিকা প্রণয়ন করতে চেষ্টা করছি।

২১ জুন মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার অফিসের সম্মেলন কক্ষে পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির ২৪তম সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে সুজন চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রাম নগরীতে রেলওয়ের অনেক জায়গা আছে, অনেক পাহাড় আছে। চট্টগ্রাম শহরজুড়ে যে বড় বড় পাহাড় আছে তার অধিকাংশই রেলওয়ের মালিকানাধীন। কিন্তু রেলওয়ের কার্যক্রম না থাকার কারণে অনেকগুলো পাহাড়ে অবৈধ বসতি স্থাপন হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণভাবে অবৈধ লোকজন বসবাস করছে।

তিনি বলেন, যারা পাহাড়ে অবৈধভাবে বসবাস করছে তাদের কিভাবে সরিয়ে আনা যায় সেটা নিয়ে আমরা কাজ করছি। আজকের বৈঠকেও তা নিয়ে আলোচনা চলছে।

রেলওয়ের এই কর্মকর্তা বলেন, কয়েকদিন আগে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আকবার শাহ থানার ঝিল ১ এ ২০০ টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। সেই জায়গায় ফেন্সিং করার ব্যবস্থা করা হবে। আমরা চেষ্টা করছি রেলওয়ের পাহাড় যারা অবৈধভাবে দখল করছে তাদের সরিয়ে দেওয়ার জন্য।

তিনি বলেন, রেলওয়ের প্রধান ফোকাস থাকে রেললাইন সচল রাখার দিকে। সেই জায়গায় রেলওয়ের ভূসম্পত্তি রক্ষা করার ক্ষেত্রে যে জনবল ও বাজেট দরকার, তা পুরোপুরি আমরা পাই না। আমরা যদি ভূসম্পত্তিতে আরও ভালো বরাদ্দ পেতাম, তাহলে আমরা আরও ভালো করে আমাদের জায়গাগুলোকে সংরক্ষণ করতে পারতাম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: