বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৮:০০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করুন: বৌদ্ধ নেতাদের রাষ্ট্রপতি সাংবাদিকরা সহায়তা করলে আদালতে মামলা কমবে : প্রধান বিচারপতি গণতন্ত্রের জন্য যে দেশ স্বাধীন হয়েছে, সে দেশে এখন আর গণতন্ত্র নেই : শামসুজ্জামান দুদু লু এলেন, ভাবলাম সম্পর্ক ভালো করতে চায় কিন্তু নিশিরাতে স্যাংশন দিলো: কাদের ১ মিনিটের ‘ঝড়’ তুললেন মাহি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচের আম্পায়ার বাংলাদেশি সৈকত অবাধ্য পর্যটক সামলাতে দেওয়াল তুলছে জাপান হিমালয়সহ পাহাড়-পর্বত রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: পরিবেশমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই : স্পিকার নির্বাচনে জিতে দুধ দিয়ে গোসল করলেন চেয়ারম্যান!

মির্জাপুরে আমানত ফেরত পাওয়ার দাবিতে গ্রাহকদের মানববন্ধন

মির্জাপুর উপজেলা প্রতিনিধি
আপডেট : বুধবার, ১৫ মে, ২০২৪
মির্জাপুরে আমানত ফেরত পাওয়ার দাবিতে গ্রাহকদের মানববন্ধন

মির্জাপুর উপজেলা প্রতিনিধি : 

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বেসরকারি সংস্থা ‘সময়ের কথা’ নামক এনজিও কর্মকর্তারা গ্রাহকের টাকা নিয়ে গা ডাকা দেয়ায় ভূক্তভোগী শতাধিক গ্রাহক তাদের আমানতের টাকা ফেরতের দাবিতে মানবন্ধন করেছে। পরে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ নুরুল আলমের কাছে স্মরকলিপি পেশ করে।

বুধবার (১৫ মে) বেলা ১১টা থেকে উপজেলা পরিষদ চত্বরের মুক্তির মঞ্চের সামনে ঘন্টাব্যাপী তারা এ মানববন্ধন করে।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তৃতা করেন, মির্জাপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুমন হক, ভূক্তভোগী গ্রাহক ভারতেশ্বরী হোমসের শিক্ষক কালিপদ সাহা, হিরা সাহা, মঙ্গলী রাজবংশি, ডাবলু সাহা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সময়ের কথা এনজিওর নির্বাহী পরিচালক জাহঙ্গীর আলম, পরিচালক পিন্টু দে এবং শাখা ব্যবস্থাপক সুধীর ঘোষ তাদের অধিক লাভ দেয়াসহ নানা প্রলোভন দেখিয়ে উপজেলা সদরের মির্জাপুর, সরিষাদাইড়, বুড়িহাটী, পাহাড়পুরসহ বিভিন্ন গ্রামের সহজ সরর মানুষের কাছ থেকে প্রায় ৭ কোটি টাকা আমানত সংগ্রহ করেন।

গত ৬ মাসেরও বেশি সময় ধরে তারা গ্রাহকে কোন লাভ না দিয়ে ঘুরাতে থাকে। সম্প্রতি তারা জানতে পারেন সুধীর ঘোষ এবং পিন্টু দে গ্রাহকের টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে। তারা গত ১৫ এপ্রিল মির্জাপুর সাহাপাড়াস্থ সময়ের কথা এনজিও অফিসে গিয়ে অফিস তালাবদ্ধ দেখতে পান। তারা পরিচালক পিন্টু দের বাড়িতে গেলে তার স্ত্রী কলি সাহা তাদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরন করেন এবং ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করেন।

অসহায় গ্রাহকরা স্থানীয় সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ নুরুল আলম এবং মির্জাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এতেও কোন সমাধান না পাওয়ায় বুধবার তারা আমানত ফেরতের দাবিতে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচী পালন করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া