রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

মাদক সংশ্লিষ্টতায় সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া গ্রেফতার

বিনোদন ডেস্ক
আপডেট : মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
মাদক সংশ্লিষ্টতায় সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া গ্রেফতার
রিয়া চক্রবর্তী

মাদক সংশ্লিষ্টতায় সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের তৃতীয় দিন ভারতীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি) তাকে গ্রেফতার করেছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, ৬৭ ধারায় রিয়া চক্রবর্তী তার দোষও স্বীকার করেছেন। সুশান্তের মৃত্যুর ৮১ দিন পর গ্রেফতার করা হলো তার প্রেমিকাকে।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর খবর, মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) তৃতীয় দিনের মতো মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে নেওয়া হয় রিয়াকে। এদিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুুপুরেই তাকে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়। আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকেল ৪টার দিকে গ্রেফতার দেখানো হয় তাকে। এর আগে তাকে রোববার ছয় ঘণ্টা ও সোমবার আট ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে এনসিবি।

ভারতের গণমাধ্যমগুলো বলছে, গ্রেফতারের পরপরই রিয়া চক্রর্তীর মেডিকেল টেস্ট করানো হবে। এর জন্য তার চুলের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এর আগেই গ্রেফতার রিয়ার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডার সঙ্গেই এরপর রিয়াকে আদালতে তোলা হবে।

আরও পড়ুন : চলতি মাসেই সিনেমার শুটিংয়ে অংশ নিবেন দীপিকা পাড়ুকোন

গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বাড়িতে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও পরে আদালতের নির্দেশে তদন্তভার পায় ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। সুশান্তের আত্মহত্যার তদন্ত করতে গিয়ে একপর্যায়ে তার প্রেমিকার রিয়া চক্রবর্তীর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে মাদক সংশ্লিষ্টতার কথা উঠে আসে। এরপর থেকেই মাদক সংশ্লিষ্টতা নিয়ে তদন্ত শুরু করে এনসিবি।

এর অংশ হিসেবে শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে রিয়া চক্রবর্তী ও স্যামুয়েল মিরান্ডার বাড়িতে তল্লাশি শুরু করে এনসিবি। রিয়ার বাড়ি থেকে ল্যাপটপ, মোবাইলসহ একাধিক ইলেকট্রনিক গেজেট জব্দ করেন এনসিবি কর্মকর্তারা। ওই দিনই রিয়ার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এনসিবি। সন্ধ্যার পরপর খবর আসে, তাদের দু’জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা যায়, এনসিবি কর্মকর্তাদের কাছে স্বীকারোক্তিতে রিয়ার ভাই সৌভিক জানিয়েছেন, দিদি রিয়া তাকে মাদক জোগাড় করতে বলেছিলেন! আর সেই নির্দেশেই স্যামুয়েল মিরান্ডাসহ সুশান্তের জন্য মাদকের ব্যবস্থা করে সৌভিক। এর আগে মিরান্ডাও এনসিবি’র কাছে একই কথা বলেছিলেন। জানিয়েছিলেন, ভাই-বোনের কথামতোই সুশান্তের জন্য ‘ডুবি, বাড’ প্রভৃতির আয়োজন করা হতো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: