বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৩:৫২ অপরাহ্ন

মসজিদের ইমামের বর্ণনায় সিনহা হত্যাকাণ্ড রাতের ভয়ানক দৃশ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০
মসজিদের ইমামের বর্ণনায় সিনহা হত্যাকাণ্ড রাতের ভয়ানক দৃশ্য
শামলাপুর চেকপোস্ট

টেকনাফের শামলাপুর চেকপোস্টে গুলি করা হয় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহাকে। চেকপোস্টের পাশেই জনাকীর্ণ বাজার, আছে মসজিদও।
প্রতিদিনের মতো ঘটনার রাতে এশার নামাজ পড়ে মসজিদের ভেতরেই বসেছিলেন বায়তুন নুর জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ শহীদুল ইসলাম। একটি গুলির আওয়াজ শুনে ছাদে আসেন।

যেখান থেকে ঘটনাস্থলের দূরত্ব ২০ গজের মধ্যে। তিনি বর্ণনা করেছেন সেই রাতের ভয়ানক দৃশ্য।

শামলাপুর চেকেপোস্ট ছিলো এপিবিএনের চেকপোস্ট। এখানে শুধু এপিবিএনের সদস্যরাই দায়িত্ব পালন করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ১৬ এপিবিএনের অধিনায়ক।

অভিযানের আগে এপিবিএনকে কোনো তথ্য দেয়া হয়েছিলো কিনা তাও স্পষ্ট জানা যায়নি। আর যাদের অভিযানে মৃত্যু হয়, তাদের পরনে পুলিশের পোশাক ছিল না; সবাই ছিলেন সাদা পোশাকে।

বায়তুন নুর জামে মসজিদের খতিব ও ইমাম হাফেজ শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘গুলির শব্দ শুনে ছাদে আসলাম। ছাদে আসার পর দেখলাম পরপর আরো তিনটি গুলি করা হলো। যাকে গুলি করছিল তিনি হাত উপরে তুলে হাঁটু গেড়ে বসেছিলেন।’ যিনি গুলি করেছেন তিনি সিভিল পোশাকে ছিলেন বলেও উল্লেখ করে করেন মসজিদের ইমাম।

শামলাপুর চেকপোস্ট যেখানে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহাকে গুলি করা হয় মঙ্গলবার সেখানে দেখা যায় তিনজন এপিবিএনের সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

আরও পড়ুন : পুলিশের গুলিতে সিনহার মৃত্যু: সব সত্য জানাবেন শিপ্রা-সিফাত

কোনো বক্তব্য দিতে রাজি না হলেও জানালেন, তিনদিন হলো তারা এই চেকপোস্টে যোগ দিয়েছেন। এই পোস্টে পুলিশের কোনো সদস্য দায়িত্ব পালন করেন না।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও পরিদর্শক লিয়াকতসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য ছিলেন সাদা পোশাকে।

প্রদীপ কুমার ও লিয়াকত ছাড়া অন্যদের স্থানীয়রা চিনতে পারেননি। এই অভিযান কতটা যৌক্তিক ছিল তা জানতে টেলিফোনে কথা হয় ১৬-এপিবিএন অধিনায়ক পুলিশ সুপার হেমায়েতুল ইসলামের সঙ্গে।

তিনি বলেন, এ চেকপোস্টে এপিবিএন’র সদস্যরাই দায়িত্ব পালন করেন। তবে, এ চেকপোস্টের পাশে জেলা পুলিশের তদন্ত কেন্দ্র আছে।
সেখানে একজন ইনচার্জের তত্ত্বাবধানে সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে গাড়ি তল্লাশি করেন। ঘটনার দিন এপিবিএনের সদস্যরা চেকপোস্টে দায়িত্ব পালন করছিলেন আর পাশেই জেলা পুলিশের তদন্ত কেন্দ্রে দায়িত্বরত ইনচার্জ একটি গাড়ি থামিয়ে তল্লাশি করেন।

এদিকে, টেকনাফ থানার নতুন ওসি জানালেন, পুলিশ আইন মেনে যেন কাজ করেন, সে দিকে লক্ষ্য রাখবেন তিনি।

৩১শে জুলাই রাতে কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভের টেকনাফ থানার শামলাপুর পুলিশ চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া