মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৯:২২ অপরাহ্ন

ভিয়ারিয়ালকে হারিয়ে শীর্ষে ফিরলো রিয়াল

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০২৩
ভিয়ারিয়ালকে হারিয়ে শীর্ষে ফিরলো রিয়াল

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

মিডফিল্ডার লুকা মদ্রিচের অসাধারণ নৈপূণ্যে ভিয়ারিয়ালকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। জিরোনাকে পেছনে ফেলে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলেরও শীর্ষে উঠে গেছে কার্লো আনচেলত্তির দল। তবে ম্যাচ জিতেও স্বস্তিতে ছিল না রিয়াল। কারণ, খেলার ৩৫তম মিনিটে এসিএল ইনজুরিতে পড়ে দল থেকে ছিটকে গেছেন অস্ট্রিয়ান ডিফেন্ডার ডেভিড আলাবা।

রোববার (১৭ ডিসেম্বর) রাতে নিজেদের ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে মাঠে নামে রিয়াল। মাঠে নেমে দাপুটে খেলে ৬০ শতাংশ বল দখলে রাখে স্বাগতিকরা। সঙ্গে একে একে চারবার সফরকারীদের জালে বল জড়ায় রিয়াল।

দলের হয়ে গোল করেন জুড বেলিংহ্যাম, রদ্রিগো, ব্রাহিম দিয়াজ ও লুকা মদ্রিচ। লুকা একটি গোল করার পাশাপাশি বেলিংহ্যামের গোলে দারুণ অ্যাসিস্ট করেছিলেন। অপরদিকে বিরতি থেকে ফিরে এসে ৫৪তম মিনিটে ভিয়ারিয়ালের একমাত্র গোলটি করেন হোস লুইস মোরালস।

ম্যাচের চর্তুদশ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার প্রথম সুযোগটি পায় রিয়াল। তবে কাজে লাগাতে পারেননি ব্রাহিম দিয়াজ। অবশেষে ম্যাচের ২৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল। দলকে এগিয়ে নেন ‘গোল্ডের বয়’ জুড বেলিংহ্যাম। মাঠের ডান দিক থেকে লুকাস ভাসকেসের পাস পেয়ে প্রথম ছোঁয়াতেই আয়ত্তে নিয়ে অসাধারণ এক ক্রস বাড়ান মদ্রিচ। বক্সের বাইরে সেই পাস খুঁজে নেয় বেলিংহ্যামকে। বলে চোখ রেখে খানিকটা লাফিয়ে উঠে জোরালো হেডে আসরে নিজের ১৩তম গোলটি করেন ইংলিশ মিডফিল্ডার।

খানিক বাদে উভয় দলেই চোট আঘাত হানে। ২৯তম মিনিটে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন ভিয়ারিয়ালের মিডফিল্ডার আলেসান্দ্রো বায়েনা। আর প্রতিপক্ষের থেকে বল কাড়তে গিয়ে পায়ে আঘাত পেয়ে বেশ কিছুক্ষণ মাঠেই পড়ে থেকে দুজনের কাঁধে ভর দিয়ে মাঠ ছাড়েন রিয়াল ডিফেন্ডার ডেভিড আলাবা।

খেলা শুরু হতেই ৩৭তম মিনিটে আবারও এগিয়ে যায় রিয়াল। ছয় গজ বক্সের বাইরে জটলার মধ্যে ভাসকেসের ছোট পাস পেয়ে কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রদ্রিগো। এই নিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে সবশেষ ১১ ম্যাচে ৯টি গোল করলেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধে দুই গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রিয়াল।

দ্বিতীয়ার্ধে চাপ ধরে রেখে খেলতে থাকে রিয়াল। ৫৪তম মিনিটে দারুণ এক প্রতি-আক্রমণে তাদেরকে স্তব্ধ করে দেয় ভিয়ারিয়াল। রামোনের পাস বক্সের বাইরে পেয়ে প্রতিপক্ষের দুই ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে ভেতরে ঢুকে নিচু শটে ব্যবধান কমান মোরালেস। পুরো ম্যাচে লক্ষ্যে এটাই তাদের একমাত্র শট।

তবে কিছুক্ষণ বাদেই চার মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে জয়ের সম্ভাবনাকে জোরাল করে রিয়াল। ৬৪তম মিনিটে মাঝমাঠের কাছে ফ্রান গার্সিয়ার পাস নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার মাঝেই দারুণ ভঙ্গিতে একজনকে ফাঁকি দিয়ে ছুটতে থাকেন দিয়াস। ডি-বক্সে ঢুকে আরও একজনকে কাটিয়ে নিখুঁত শটে দলকে ফের দুই গোলে এগিয়ে নেন স্প্যানিশ উইঙ্গার। মদ্রিচ স্কোরলাইন ৪-২ করেন। ডি-বক্সে রদ্রিগো প্রতিপক্ষের বাধায় পজেশন হারালে আলগা বল প্রথম ছোঁয়াতেই জালে পাঠান তিনি।

চলতি মৌসুমে ১৭ ম্যাচ খেলে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। তার থেকে এক ম্যাচ কম খেলে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে জিরোনা। রিয়াল থেকে ৭ পয়েন্ট কম নিয়ে তৃতীয়স্থানে রয়েছে বার্সেলোনা।

লিগামেন্টের চোটে আলাবার চলতি মৌসুমের বাকি অংশ থেকে ছিটকে যাওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে। যদিও এখনো নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি এ ব্যাপারে। রিয়ালের ডিফেন্ডারের চোটের ব্যাপারে রিয়াল এক বিবৃতিতে বলেছে, ডেভিড আলাবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর দেখা গেছে, তাঁর বা হাঁটুর লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে তাঁর অস্ত্রোপচার করা হবে।

চলতি মৌসুমে লিগামেন্টের চোটে আক্রান্ত হওয়া রিয়ালের খেলোয়াড় একমাত্র আলাবাই নন। গত আগস্টে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে লিগামেন্টের চোটে পড়েন এদের মিলিতাও। মিলিতাওয়ের আগে গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া চোটে পড়ে কয়েক মাসের জন্য ছিটকে গেছেন দল থেকে। এক গোলরক্ষক ও দুই ডিফেন্ডার চোটে পড়ায় দুশ্চিন্তায় দেখা গেছে কার্লো আনচেলত্তিকে। ম্যাচ শেষে গতকাল যখন আলাবার চোট সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হয়, তখন রিয়াল কোচ বলেন, আমি তার (আলাবা) সঙ্গে কথা বলিনি। এটা অবশ্যই দুঃখের বিষয়। আরেক খেলোয়াড় হারিয়ে বেশ খারাপ লাগছে। চার মাসে তিন খেলোয়াড়ের লিগামেন্টের চোটে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা আমি কখনো দেখিনি।’ রক্ষণভাগের ফুটবলার একের পর এক চোটে আক্রান্ত হওয়ায় নতুন এক ডিফেন্ডার খোঁজার কথাও জানিয়েছেন আনচেলত্তি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া