বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জ্বালানি সংকট বাড়ছে

রিপোর্টারের নাম
আপডেট : শুক্রবার, ২৯ জুলাই, ২০২২
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জ্বালানি সংকট বাড়ছে

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের কারণে শুধু বাংলাদেশকেই নয়, বিদ্যুৎ ও জ্বালানির সংকটে পড়তে হয়েছে বিশ্বের অনেক উন্নত দেশকেও। ঘাটতি দেখা দিয়েছে বিদ্যুৎ সরবরাহে। আর বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে আহবান জাননোর পাশাপাশি নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে উন্নত অনেক দেশেই। রাখা হয়েছে জরিমানার বিধান।

ইউক্রেন-রাশিয়ার দীর্ঘমেয়াদি যুদ্ধের কারণে পুরো বিশ্বেই চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে। যুদ্ধের প্রভাবে বিশ্বব্যাপী জ্বালানি তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম বেড়েছে। বাধাগ্রস্ত হচ্ছে সরবরাহও। সবচেয়ে বেশি ধাক্কা লেগেছে বিদ্যুৎখাতে।্ বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোই শুধু নয়, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকটের প্রভাব পড়েছে জার্মানি, ফ্রান্স, জাপান কিংবা অস্ট্রেলিয়ার মতো ধনী দেশগুলোতেও।

জাপানে ফুকুশিমা ট্র্যাজেডির পর পারমাণবিক এবং কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো ধীরে ধীরে বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। যার ফলে বিদ্যুতের চাহিদার ৯০ শতাংশ আমদানির মাধ্যমে মেটাতে হয়। যার মূল্য পরিশোধ করা হয় ডলারে। বিশ্বব্যাপী বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাঁচামাল জ্বালানি তেল, গ্যাস ও কয়লার দাম ঊর্ধ্বমুখী থাকায় বিশাল অঙ্কের অর্থ পরিশোধে বিপাকে পড়েছে দেশটি। একই সময়ে একাধিক ঘরে এয়ারকন্ডিশনার ব্যবহার না করাসহ বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে জনগণের প্রতি নানা আহবান জানিয়েছে সরকার।

ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ জার্মানি ভয়াবহ বিদ্যুৎ সংকটে পড়েছে। বিদ্যুৎ উৎপাদনের অন্যতম কাঁচামাল গ্যাসের রপ্তানি রাশিয়া কমিয়ে দেয়ায় সংকট মোকাবেলায় বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে জার্মানি। কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র ফের সচল করা হচ্ছে। বার্লিনে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য নানামুখি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

আরেক ধনী দেশ ফ্রান্সেও গ্যাস ও জ্বালানি সংকট তীব্র হচ্ছে। নিত্যপণ্যের মূল বৃদ্ধিতে নাকাল জনগণ। আসছে শীত মৌসুমে বিদ্যুৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন দেশটির সরকার। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য তাই ফ্রান্সজুড়ে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত দোকানগুলোকে দরজা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই নির্দেশ অমান্য করলে ৭৫০ ইউরো জরিমানা করবে সরকার।

জ্বালানি ব্যবহার সাশ্রয়ী করতে নানা ব্যবস্থা নিয়েছে স্পেন। সরকারি কর্মচারীদের এয়ারকন্ডিশনার ব্যবহার না করে যতটা সম্ভব বাড়ি থেকে কাজ করতে বলেছে সরকার। আর অফিসে এসি চালালে তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রির বেশি রাখতে অনুরোধ করেছে সরকার।

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া সরকারও। নিউ সাউথ ওয়েলেসে ৮০ লাখ নাগরিককে দিনে দুই ঘণ্টা বিদ্যুৎ ব্যবহার না করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এছাড়া ইতালি, সিঙ্গাপুর ও যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন উন্নত দেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সংকটে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া