শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৬:২০ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে সিলেটে ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২৪
বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে সিলেটে ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক : 

পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে সফরে এসেছে ভারতীয় নারী ক্রিকেট দল। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সিলেটে এসে পৌঁছায় তারা। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলতে এসেছে ভারত নন্দিনীরা। মূলত বিশ্বকাপের প্রস্তুতির অংশ হিসেবেই হারমানপ্রীত কৌরদের এই সফর।

সিরিজের সব ম্যাচ সিলেটে। আর আসন্ন বিশ্বকাপেও বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের ম্যাচ সিলেটে। স্বল্পদৈর্ঘ্যের টুর্নামেন্টে পয়দা লুটতে দুদলের জন্য সিরিজটি খুবই গুরুত্বের। অচেনা কন্ডিশন আরেকটি চেনার সুযোগ ভারতের। হাই প্রোফাইলদের বিপক্ষে খেলার সুযোগ বাংলাদেশের।

২৮ এপ্রিল সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মূল মাঠে হবে প্রথম টি-টোয়েন্টি। ৩০ এপ্রিল দ্বিতীয় ম্যাচও একই মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম দুই ম্যাচ হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়, রাতের আলোয়। এরপর ২ ও ৬ মে পরের দুই ম্যাচ রাখা হয়েছে স্টেডিয়ামের আউটার গ্রাউন্ডে, যেটি গ্রাউন্ড-২ হিসেবে পরিচিত। এই দুই ম্যাচ হবে দুপুর ২টায়। ৯ মে শেষ ম্যাচটি আবার রাখা হয়েছে মূল মাঠে, সন্ধ্যা ৬টায়।

এবারের সফর নিয়ে মোট তৃতীয়বার টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসলো ভারতীয় মেয়েরা। ২০১৪ সালে প্রথম সফরে ৩-০ ব্যবধানে জেতে ভারত। গত বছরের জুলাইয়ে সর্বশেষ সফরে ভারত সিরিজ জেতে ২-১ ব্যবধানে। যদিও সেবার ওয়ানডে সিরিজে দু’দলের মধ্যকার উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে নাহিদা আক্তারের বলে সুইপ খেলতে গিয়ে সফরকারী অধিনায়ক হারমানপ্রীতের ব্যাট ও পা (অস্পষ্ট) ছুঁয়ে স্লিপারের হাতে ধরা পড়ে। ওই সময় আবেদনে সাড়া দিয়ে তাকে আউট দেন আম্পায়ার তানভীর আহমেদ।

এমন সিদ্ধান্ত কিছুতেই মানতেই পারেননি ভারতীয় অধিনায়ক। মাঠে কয়েক সেকেন্ড দাঁড়িয়ে থেকে হাতে থাকা ব্যাট দিয়ে স্টাম্পে আঘাত করে বসেন। এতে একটি স্ট্যাম্প উড়ে গিয়ে পড়ে ৪-৫ হাত দূরে। এরপর আম্পায়ারের দিকে আঙুল তুলে কিছু কথা বলে ক্ষোভ নিয়ে মাঠ ত্যাগ করেন তিনি। পরবর্তীতে সাংবাদিকদের সামনে বলে যান বাংলাদেশে ভবিষ্যতে খেলতে এলে ‘প্যাথেটিক আম্পায়ারিং’–এর মুখোমুখি হওয়ার প্রস্তুতি নিয়েই আসবেন! সেই আম্পায়ার তানভীর আহমেদকে এবার সিরিজে রাখা হয়নি।

ভারতের স্কোয়াড : হারমানপ্রীত কৌর (অধিনায়ক), স্মৃতি মান্ধানা (সহ–অধিনায়ক), শেফালি ভার্মা, দয়ালন হেমলতা, সাজানা সজীবন, রিকা ঘোষ (উইকেটকিপার), ইয়াশতিকা ভাটিয়া (উইকেটকিপার), রাধা যাদব, দীপ্তি শর্মা, পূজা বস্ত্রকার, আমানজোত কৌর, শ্রেয়াঙ্কা পাতিল, সাইকা ইসহাক, আশা সোভানা, রেনুকা সিং ও তিতাস সাধু।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া