শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ০২:১৬ পূর্বাহ্ন

বরিশালে দুর্গাসাগর দিঘিতে পুণ্যস্নানে নেমে কিশোরের মৃত্যু

বরিশাল জেলা প্রতিনিধি
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪
বরিশালে দুর্গাসাগর দিঘিতে পুণ্যস্নানে নেমে কিশোরের মৃত্যু

বরিশাল জেলা প্রতিনিধি : 

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাসাগর দিঘিতে পুণ্যস্নানে নেমে রণজিৎ মন্ডল (১৮) নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

রণজিৎ মন্ডল বরিশাল নগরীর অক্সফোর্ড মিশন রোডের ঘোষ বাড়ির সাগর মন্ডলের ছেলে। বরিশাল নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ড অক্সফোর্ড মিশন রোডে ঘোষ বাড়ির বাসিন্দা। মন্দিপ বরিশাল নগরীর সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) লোকমান হোসেন।

জানা গেছে, রণজিৎ মন্ডল পরিবারসহ দুপুরে দুর্গাসাগর দিঘিতে পুণ্যস্নানে নামেন। কিছুক্ষণ পরে তাকে আর পাওয়া যাচ্ছিল না। পরিবারের লোকজন দ্রুত ফায়ার সার্ভিস ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চাইলে দুপুর ১২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল দিঘিতে নেমে রণজিৎ মন্ডলকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে তাকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মন্দিপের মা চম্পা মন্ডল বলেন, দুর্গাসাগর দিঘিতে দুই ছেলেসহ স্বামী সাগর মন্ডল গোসল করতে যায়। গোসল শেষে মন্দিপকে দেখতে না পেয়ে খোঁজ শুরু হয়। মাইকিং করে না পেয়ে ডুবুরি ঘাট থেকে কিছুদূর থেকে ছেলেকে উদ্ধার করেছে। সে সাঁতার জানত না। কীভাবে ডুবে গেছে কেউ দেখেনিও।

বরিশাল দক্ষিণ ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মীর শাহবুদ্দিন বলেন, মন্দিপকে না পেয়ে মাইকিং করার সঙ্গে সঙ্গে দিঘিতে তাদের ডুবুরিরা তল্লাশি করে। অজ্ঞান অবস্থায় মন্দিপকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম বলেন, দুর্গা সাগর দিঘিতে ডুবে যাওয়া এক তরুণকে নিয়ে আসা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়েছে। প্রকৃত কারণ ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা যাবে না। তাই মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্দিপের পরিবার ময়নাতদন্ত করবে না বলে জানিয়েছে স্বজন অরুন কর্মকার। তিনি বলেন, বিনা ময়নাতদন্তে লাশ নেওয়ার জন্য জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আবেদন করা হয়েছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) লোকমান হোসেন বলেন, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরিবার যদি জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি নিয়ে এলে বিনা ময়নাতদন্তে দেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া