মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০৪:৩৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
১৯ জুন থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সংবাদ সম্মেলনে দ্রুত বিচার চাইলেন পরীমনি চলে গেলেন বিশ্বের ‘সবচেয়ে বড় পরিবার’ প্রধান আদালত ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না খুললে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি বিয়ে করেছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ক্ষমাপ্রার্থনা লে. জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ নতুন সেনাপ্রধান দৃষ্টিনন্দন ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারে সামরিক প্লেন বিধ্বস্তে ১২ জন নিহত চোখের পানিতে শেষ বিদায় প্রিয় মাহুতকে (ভিডিও) হ্যারি-মেগানের কন্যার জন্মে রানির শুভেচ্ছা-অভিনন্দন দৌলতদিয়ায় ৭ নং ফেরিঘাটে ভাঙন শ্রাবন্তীর সঙ্গে সংসার করতে চেয়ে আদালতের রোশন চিলমারী বন্দর নিয়ে গান গাইলেন প্রধানমন্ত্রী করোনার জরুরি চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গরিবের বন্ধু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারতীয় ঋণে রেলের তিন প্রকল্প ঝুলছে এক দশক কন্যা সন্তানের বাবা মা হলেন হ্যারি মেগান সমালোচনাকে থোরাই কেয়ার করেন রাইমা গাজীপুরে শীতলক্ষ্যার মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

ফিলিস্তিনিদের বাঁচাতে সালাহর আকুতি বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে

ক্রীড়া প্রতিবেদক
আপডেট : বুধবার, ১২ মে, ২০২১
ফিলিস্তিনিদের বাঁচাতে সালাহর আকুতি বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে
ফিলিস্তিনিদের বাঁচাতে সালাহর আকুতি বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে

ইসরায়েলি আগ্রাসনে রক্ত ঝরছে ফিলিস্তিনিদের। আর ফিলিস্তিনিদের কান্না ছুঁয়ে গেছে ফুটবলারদেরও। ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়িয়েছেন লিভারপুলের মিসরীয় ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ সালাহ। ইন্টার মিলানের মরোক্কান রাইটব্যাক আশরাফ হাকিমি, বায়ার্ন মিউনিখের লেফটব্যাক আলফোনসো ডেভিস, রিয়াল মাদ্রিদের মিডফিল্ডার নূরি সাহিনÑ সবাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরব হয়েছেন ইসরায়েলের বিরুদ্ধে।

ফিলিস্তিনে হামলা থামানোর জন্য ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে আহ্বান জানিয়েছেন সালাহ। টুইটারে নিজের প্রতিবাদ প্রকাশ করার পাশাপাশি বহু আগে তোলা আল-আকসা মসজিদের সামনে নিজের একটা ছবিও পোস্ট করেছেন লিভারপুলের হয়ে প্রিমিয়ার লীগ ও চ্যাম্পিয়নস লীগজয়ী এই উইঙ্গার।

শুধু বরিস জনসনই নন, অন্য প্রভাবশালী বিশ্বনেতাদেরও একই আহ্বান জানিয়েছেন সালাহ। মোহাম্মদ সালাহ লিখেছেন, ‘যে দেশটায় গত চার বছর ধরে আমার বাড়িঘর, সেই দেশের প্রধানমন্ত্রীসহ আরও সব বিশ্বনেতাকে আহ্বান জানাচ্ছি, আপনাদের সামর্থ্যরে সর্বোচ্চটুকু দিয়ে এই নৃশংসতা থামান। নিরস্ত্র, নিরপরাধ মানুষকে নির্বিবাদে হত্যা করা হচ্ছে, এটা থামান। এখনই। যথেষ্ট হয়েছে।’

আল-আকসা মসজিদ ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের কাছে অন্যতম পবিত্র স্থান হিসেবে বিবেচিত। তবে এটি ইহুদি ধর্মাবলম্বীদের কাছেও একটি পবিত্র স্থান, যাকে তারা টেম্পল মাউন্ট হিসেবে জানেন। সেই মসজিদ প্রাঙ্গণই গত শুক্রবার থেকে রণক্ষেত্রে রূপ নিয়েছে।

মূলত, ইসরায়েলের দখল করা এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করাকে কেন্দ্র করে সেখানে উত্তেজনা চলছে। জেরুজালেম লাগোয়া এই এলাকা থেকে ফিলিস্তিনি চারটি পরিবারকে ইসরায়েলি সুপ্রিম কোর্ট উচ্ছেদের আদেশ দিতে যাচ্ছেÑ এমন আশঙ্কা থেকে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলছিল। শুক্রবার থেকেই বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিতে ইসরায়েলি পুলিশ তৎপরতা শুরু করে।

এরপর দুই পক্ষের সংঘর্ষ শুরু হয়। গত সোমবার সেটা চূড়ান্ত রূপ নেয়। মসজিদ চত্বর থেকে জোর করে ফিলিস্তিনিদের সরিয়ে দিতে ইসরায়েলি পুলিশ রাবার বুলেট, জলকামান ও সাউন্ড গ্রেনেড ব্যবহার করে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর, মসজিদ চত্বর থেকে ফিলিস্তিনিদের সরিয়ে দিতে ইসরায়েলি পুলিশের চার দিনের অভিযানে এক হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৮-এ দাঁড়িয়েছে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ১০ শিশুও রয়েছে। এ ঘটনায় ফিলিস্তিনের কট্টরপন্থী সংগঠন হামাস সোমবার মসজিদ চত্বর থেকে পুলিশ প্রত্যাহারের জন্য আলটিমেটাম দেয় ইসরায়েলকে। সেই আলটিমেটাম পার হলে ইসরায়েলের রাজধানী তেলআবিব লক্ষ্য করে রকেট ছোড়ে হামাস।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: