বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৫৪ অপরাহ্ন

প্রার্থনায় কৃতজ্ঞতায় অমিতাভ বচ্চন

বিনোদন প্রতিবেদক
আপডেট : শনিবার, ১৮ জুলাই, ২০২০

বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়ে মুম্বাইয়ের নানাবতি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ছেলে অভিষেক বচ্চন, পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, নাতনি আরাধ্য করোনা আক্রান্ত হয়ে একই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের আরোগ্য লাভের জন্য প্রার্থনা করছেন দেশ বিদেশের ভক্তরা। অনেকেই অমিতাভ এবং বচ্চন পরিবারের জন্য পূজার আয়োজন করেছেন।

এদিকে হাসপাতালে থাকলেও মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে নিয়মিত ভক্তদের শারীরিক অবস্থার তথ্য জানাচ্ছেন বিগ বি। এতে প্রার্থনা ও ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি।

এক টুইটে অমিতাভ লিখেছেন: ‘অভিষেক, ঐশ্বরিয়া, আরাধ্য ও আমাকে নিয়ে যারা উদ্বেগ, প্রার্থনা ও মঙ্গল কামনা করেছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা।’

অপর এক টুইটে তিনি লিখেছেন: ‘আমার জন্য সবাই যে প্রার্থনা ও শুভকামনা করছেন সবগুলোর উত্তর দেওয়া সম্ভব নয়। অভিষেক, ঐশ্বরিয়া, আরাধ্য ও আমাকে নিয়ে যারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আমি শুধু হাত জোড় করে তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। অসীম ভালোবাসা।’

একই টুইটে ছয় রকম ব্যক্তির কাছ থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন এই সুপার স্টার। ‘যারা হিংসা ছড়ায়, সবাইকে অপছন্দ করে, অসন্তোষ, রাগান্বিত থাকে, সন্দেহ করে এবং অন্যের ওপর নির্ভরশীল— এই ছয় রকম মানুষ সবসময় দুঃখের মধ্যে থাকে। এই ধরনের মানুষ থেকে যতদূর সম্ভব দূরে থাকুন’-লিখেছেন তিনি।

এর আগে এক টুইটে অমিতাভ দেব-দেবীর মূর্তি পোস্ট করে লিখেছেন: ‘ঈশ্বরের কাছে নিজেকে সমর্পণ করলাম।’

বিগ বি’র ঈশ্বর ভক্তির কথা কারো অজানা নয়। এই বিপদে তিনি সেই ঈশ্বরেরই শরণাপন্ন হয়েছেন এবং ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে টুইটারে একাধিক পোস্ট করেছেন। এ সময় তিনি হাসপাতালের কিছু বিধি নিষেধ থাকায় বেশি কিছু বলতে পারছেন না বলেও জানিয়েছেন।

শনিবার (১১ জুলাই) প্রথম করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানান অমিতাভ ও অভিষেক। সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নেওয়া হয় তাদের। পরদিন কোভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ হন ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্য। শুরুতে তারা বাসায় আইসোলেশনে থাকলেও গতকাল শুক্রবার (১৭ জুলাই) তাদেরও একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: