শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন

প্রথম ধাপে ১৫২ উপজেলায় ভোট ৮ মে

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ, ২০২৪
প্রথম ধাপে ১৫২ উপজেলায় ভোট ৮ মে

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

আসন্ন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের প্রথম ধাপের নির্বাচন আগামী ৮ মে অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্য ২২ টি উপজেলায় ইভিএমে ভোট গ্রহণ হবে। বাকি ১৪০ উপজেলায় স্বচ্ছ ব্যালটে ভোট গ্রহণ হবে।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ এ তথ্য জানান।

এর আগে বেলা ১১টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে তার সভাকক্ষে নির্বাচন কমিশনের ২৯তম সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

সভা শেষে ইসি অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ৪৮১ উপজেলায় চেয়ারম্যান, সাধারণ ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত ভাইস চেয়ারম্যান পদে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের এ সাধারণ নির্বাচন হবে।

তার মধ্যে প্রথম ধাপে ১৫২ উপজেলায় ভোট ৮ মে। মনোনয়নপত্র জমার শেষ সময় ১৫ এপ্রিল, মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই ১৭ এপ্রিল, আপিল দায়ের ১৮ থেকে ২০ এপ্রিল। আপিল নিষ্পত্তি ২১ এপ্রিল, মনোনয়ন প্রত্যাহার ২২ এপ্রিল, প্রতীক বরাদ্দ ২৩ এপ্রিল। ভোট গ্রহণ ৮ মে সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া, পরবর্তী ধাপের নির্বাচন গুলো ২৩ মে, ২৯ মে ও ৫ জুন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত ইসির। জামানতের টাকা বাড়িয়ে ও স্বতন্ত্রদের প্রার্থিতা সহজের পর এ নির্বাচন হচ্ছে।

ইসি এই অতিরিক্ত সচিব বলেন, ইভিএম হবে ২২ টি উপজেলায় এবং বাকিগুলোয় ব্যালট পেপারে এ নির্বাচন হবে। দলীয় প্রতীকে উপজেলা পরিষদের এ নির্বাচন হবে। পাশাপাশি স্বতন্ত্র প্রার্থিতাও রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সংশোধিত নির্বাচন পরিচালনা বিধি ও আচরণ বিধি অনুযায়ী, স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে কোনো সমর্থন সূচক তালিকা দেওয়ার প্রয়োজন নেই; রঙিন পোস্টার ছাপাতে পারবেন প্রার্থীরা। প্রচারণার সময়ও পাচ্ছে বেশি; তবে জামানতের পরিমাণ বেড়েছে এবার।

উল্লেখ্য, সংশোধিত নির্বাচন পরিচালনা বিধি ও আচরণ বিধি অনুযায়ী, স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে কোনো সমর্থন সূচক তালিকা দেওয়ার প্রয়োজন নেই; রঙিন পোস্টার ছাপাতে পারবেন প্রার্থীরা। প্রচারণার সময়ও পাচ্ছে বেশি; তবে জামানতের পরিমাণ বেড়েছে এবার।

এর আগে, ১৯৮৫ সালে উপজেলা পরিষদ চালু হওয়ার পর ১৯৯০ ও ২০০৯ সালে একদিনেই ভোট হয়েছিল। ২০১৪ সালে চতুর্থ উপজেলা নির্বাচন ছয়টি ধাপে ও ২০১৯ সালে পাঁচ ধাপে পঞ্চম উপজেলা পরিষদের ভোট হয়। আগের চারটি উপজেলা নির্বাচন নির্দলীয়ভাবে হলেও আইন সংশোধন হওয়ায় ২০১৭ সালের মার্চে মেয়াদোত্তীর্ণ তিনটি উপজেলায় দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হয়েছিল। পরে ২০১৯ সালে দলীয় প্রতীকে পূর্ণাঙ্গ নির্বাচন হয়।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলেও বিএনপি পরে নির্দলীয় উপজেলা ভোটে অংশ নিয়েছিল। গেল ১০ বছর ধরে উপজেলা ভোটে দলীয় প্রার্থী দেয়নি দলটি। দলীয় প্রতীকে ভোট হলেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ কোনো প্রার্থীকে দলীয় মনোনয়ন দিচ্ছে না। আর বিএনপি অংশ নিচ্ছে না এ নির্বাচনে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া