রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১২:৪৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ভয়ংকর আগ্নেয়গিরির ওপর ‘পিৎজা’ তৈরি উৎসব (ভিডিও) রাজধানীতে ঝড়ো হাওয়াসহ স্বস্তির বৃষ্টি প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন বলিউডের ঐশ্বরিয়া আল-জাজিরা প্রতিবেদক বললেন ‘দুই সেকেন্ডেই সব শেষ’ লকডাউনে দূরপাল্লার বাস চলার অনুমতি দেয়নি সরকার আল-জাজিরার কার্যালয় মাটিতে মিশিয়ে দিল ইসরায়েল ঈদের দ্বিতীয় দিনেও অন্যরকম এক ঢাকা ঈদেও বেতন-ভাতা পাননি বিপুল সংখ্যক রেলকর্মী ঈদের পরের দিনেও হাতিরঝিলে উপচেপড়া ভিড় ঈদের নামাজে ফিলিস্তিনিদের রক্ষায় বিশেষ মোনাজাত ফরিদপুরে প্রত্যয় এর ঈদ সামগ্রী বিতরণ ইংল্যান্ডে খরগোশ যুগলের ‘বিলাসবহুল বিয়ে’ রিকশাওয়ালাকে মারধরের আলোচিত সেই ভিডিও রেলপথ দিয়ে ভারত থেকে দেড় হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি ফিলিস্তিনিদের বাঁচাতে সালাহর আকুতি বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে করোনার দ্বিতীয় ডোজের ‘নিশ্চয়তা’ মেলেনি এখনও ঈদে কন্টেইনিয়ারে পণ্য নয় যাচ্ছে মানুষ ছিন্নমূলের পাশে দাঁড়াতে বিত্তবানের আহবান ড. সাজ্জাদের আকাশপথে বহির্বিশ্বের দরজা বাংলাদেশীদের জন্য প্রায় বন্ধ যাত্রীদের চাপ ও অতিরিক্ত গরমে ফেরিতেই মারা গেলেন ৫ জন

পর্তুগালে বিশ্বের দীর্ঘতম ঝুলন্ত সেতু

যোগাযোগ ডেস্ক
আপডেট : শনিবার, ১ মে, ২০২১
পর্তুগালে বিশ্বের দীর্ঘতম ঝুলন্ত সেতু
সংগৃহীত ছবি

সেতুর দেশ পর্তুগাল। দেশটিতে থাকা দৃষ্টিনন্দন কয়েকটি সেতু রয়েছে ইউরোপের সেরা ১০ সেতুর মধ্যে। বিশ্বের দীর্ঘতম ঝুলন্ত সেতু নির্মাণ করা হয়েছে পর্তুগালে। দেশটির বাণিজ্যিক শহর পর্তু থেকে এক ঘণ্টা দক্ষিণে আউরোকা শহরে রয়েছে এই ঝুলন্ত সেতুটি। এটি ৩মে সোমবার এর উদ্বোধন করা হবে।

ইউনেস্কো স্বীকৃত আউরোকা জিও পার্ক প্রকৃতি পর্যটন ও বহিরাঙ্গন কার্যক্রমের জন্য বিখ্যাত।

ইতিহাসের পাতায় নাম লেখানো এই ঝুলন্ত সেতুটির দৈর্ঘ্য প্রায় এক হাজার ৬৯২ ফুট বা ৫১৬ মিটার।

২০১৮ সালের মে মাস থেকে নির্মাণাধীন আউরোকা শহরের নতুন এই সেতুটি অ্যান্ডেস পর্বতের উপত্যকা অঞ্চলে বিস্তৃত ইনকা সেতুগুলো থেকে অনুপ্রাণিত। বর্তমানে সেতুটি নির্মাণের ফলে আউরোকা পৌরসভা এক অপরূপ সৌন্দর্যের শহরে রূপান্তরিত হয়েছে।

পাইভা ঘাটের দুপাশ সংযুক্ত করেছে সেতুটি। পাইভা নদীর ওপরে কাঠের ঝুলন্ত সেতু পায়ে হেটে চার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে দর্শনার্থীরা এক গ্লাস তাজা ওয়াইন উপভোগ করতে পারবেন। কারণ বাণিজ্যিক শহর পর্তু স্থানীয় ওয়াইনের জন্য বিখ্যাত।

সেতুটির ডিজাইন করেছেন পর্তুগীজ স্টুডিও আইটিকনস এবং কন্ডুরিল নামে একটি সংস্থা। কয়েক বছর সময় নিয়ে তৈরি করা হয়েছে সেতুটি।

গার্ডিয়ানের তথ্য অনুযায়ী, গত বৃহস্পতিবার সেতুটি স্থানীয়দের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। সাধারণ জনগণের মধ্যে প্রথম এই সেতু পাড়ি দিয়েছে হুগো জাভিয়ার নামের একজন।

তিনি বলেছেন, মুহূর্তটি আমার কাছে অসাধারণ এবং অনন্য অভিজ্ঞতার। আমি একটু ভয় পেয়েছিলাম। তবে আমার জন্যে সফলভাবে সেতুটি পাড়ি দেওয়া খুবই দামী অভিজ্ঞতা ছিল।

আউরোকার মেয়র মার্গারিডা বেলাম বলেন, ‘কাজটি মোটেই সহজ ছিল না, অনেক চ্যালেঞ্জ ছিল। কিন্তু আমরা অবশেষে সফল হতে পেরেছি। পৃথিবীতে এর মতো আর কোনো দীর্ঘতম ঝুলন্ত সেতু নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘নতুন এই কাঠামোটি এই এলাকায় আরও বেশি পর্যটক নিয়ে আসবে। যা দর্শনার্থীদের আনন্দ দেওয়ার পাশাপাশি, আমাদের দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা পালন করবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: