শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

নাটোরে বিএনপির সমাবেশে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত ৭

নাটোর জেলা প্রতিনিধি
আপডেট : বুধবার, ৩ জুলাই, ২০২৪
নাটোরে বিএনপির সমাবেশে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত ৭

নাটোর জেলা প্রতিনিধি : 

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে নাটোরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে হামলা ও ককটেল বিস্ফোরণ করেছে দুর্বৃত্তরা। এতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও জেলা বিএনপির আহবায়ক শহীদুল ইসলাম বাচ্চুসহ ৭ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার (৩ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে শহরের আলাইপুরস্থ জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে লাঠিচার্জ করলে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

আহতদের মধ্যে আরও রয়েছেন- জেলা শ্রমিকদলের দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সাব্বির হোসেন চপল, পৌর বিএনপির ৫ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক হিপলু।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব রহিম নেওয়াজ ও যুগ্ম-সম্পাদক ফরহাদ আলী দেওয়ান শাহিন বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় নাটোরে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে আগত নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় আওয়ামী লীগের স্থানীয় সংসদ সদস্যের অনুসারীরা। জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম বাচ্চু শহরের ফৌজদারী পাড়ার বাসা থেকে বিএনপি অফিসে আসার সময় নাটোর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে তাকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

এ সময় কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে রাস্তার কাঁদা মাটির মধ্যে তাকে ফেলে রাখে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, অনুষ্ঠানে আসার পথে জেলা শ্রমিকদলের দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সাব্বির হোসেন চপলকে মারপিট করে। পরে বেলা ১০টার দিকে জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ শুরু করে বিএনপি। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিএনপির নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বক্তব্য শুরু করলে পুনরায় সমাবেশে হামলা করা হয়। হামলায় বুলবুলসহ আরও কয়েকজন এ সময় আহত হয়। এছাড়া সমাবেশে যোগ দিতে আসা অরও অনেক নেতাকর্মীকে শহরের বিভিন্ন স্থানে হামলা করে মারপিট করা হয়েছে বলে তারা দাবি করেন।

রহিম নেওয়াজ বলেন, যারা হামলা করেছে তারা চিহ্নিত সন্ত্রাসী। নাটোরে একের পর এক হামলার পরেও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় এসব সন্ত্রাসীরা একের পর এক হামলা করার সাহস পাচ্ছে। এসব হামলার ঘটনার সময় পুলিশ নির্লিপ্ত থাকারও অভিযোগ করেন জেলা বিএনপির সদস্য সচিব। সমাবেশের সময় হামলাকারীরা বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এবং গুলি ছোড়ে বলে অভিযোগ করেছেন যুগ্ম সম্পাদক ফরহাদ আলী দেওয়ান শাহিন।

এ বিষয়ে নাটোরের পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম বলেন, বিএনপির পূর্বনির্ধারিত একটি কর্মসূচি ছিল। কর্মসূচিতে যোগ দিতে আসার পথে বিএনপি নেতা শহীদুল ইসলাম বাচ্চুসহ তিনজনের ওপর দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছি। কারা হামলা চালিয়েছে তা উদঘাটনের জন্য পুলিশ কাজ করছে। তবে বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের আহতের বিষয়টি তার জানা নেই বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া