বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন

দুমকিতে রাস্তা সংস্কার অভাবে ভেঙে বড় বড় খানাখন্দ, ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : শনিবার, ২০ মে, ২০২৩
দুমকিতে রাস্তা সংস্কার অভাবে ভেঙে বড় বড় খানাখন্দ, ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের ডাকাতিয়া খাল গোড়া থেকে তালুকদার বাজার হয়ে সেকান্দার আলী দফাদার বাড়ির দরজার গুচ্ছ গ্রাম পর্যন্ত পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাটির রাস্তাটি দীর্ঘদিন যাবৎ মেরামত, সংস্কার বা পাকা করণের অভাবে ভেঙে বড় বড় খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তি পড়ছে এলাকাবাসী।

এই রাস্তা শ্রীরামপুর, মুরাদিয়া ও মৌকরন এ তিন ইউনিয়নের হাজার হাজার জনসাধারনের যোগাযোগ মাধ্যম এবং উপজেলা শহর দুমকিতে নিত্যনৈমিত্তিক কার্যসম্পাদন, স্কুল, কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ জনসাধারণের কেনাকাটা করতে যাতায়াতের ভরসা। এছাড়াও দুমকি, মুরাদিয়া বোর্ড অফিস বাজার থেকে পটুয়াখালী যাতায়াতের বিকল্প হিসেবে এ রাস্তা দিয়ে জনসাধারণ চলাচল করে।

স্হানীয় তালুকদার বাজার, কলবাড়ি বাজারসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী মালামাল, নির্মাণ সামগ্রী পরিবহনের একমাত্র ভরসা এ রাস্তাটি। মুরাদিয়া মহিলা মাদ্রাসা, লতিফ মোহসেনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জামলা দাখিল মাদ্রাসা, ৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২টি নুরানী মাদ্রাসার শিক্ষক শিক্ষার্থীরা এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে চরম দুর্ভোগে পোহাতে হয়। অনেক সময় জরুরি ভিত্তিতে মুমূর্ষু রোগী নিয়ে আরো ভোগান্তিতে পড়তে দেখা যায় হরহামেশা। গত ৩ দিনের বৃষ্টিতে রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্ত হয়ে পানি জমে কাঁদায় পরিণত হয়েছে।

এছাড়াও রাস্তাটি দিয়ে ইট বালু বোঝাই অবৈধ মাহেন্দ্রা, ট্রলি পার্শ্ববর্তী মুরাদিয়া ইউনিয়নসহ বিভিন্ন স্থানে নিয়মিত যাতায়াত করায় আরো নাজুক হয়ে পড়েছে।

বর্তমান সরকারের আমলে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন বিশ্বের রোল মডেল। সর্বক্ষেত্রে সাফল্য গাঁথা ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন স্মার্ট বাংলাদেশ রূপান্তরের জন্য অবিরাম কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার।

অভুতপূর্ন কাজ করা স্বত্বেও পিছুটান ছাড়ছেনা এ রাস্তাটি পাকা করণের। বিভিন্ন সময় এলাকার তৃণমূল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে উপজেলা, জেলা এমনকি সাংসদ পর্যন্ত গড়িয়েছে এ অবহেলিত জনপদের একমাত্র যোগাযোগ মাধ্যম রাস্তাটির পাকাকরণনের দাবি।

রাস্তার পাশে অবস্থিত দক্ষিণ সালামপুর মঈনুল উলুম কওমী মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মোঃ ইউসুফ আলী খান বলেন, এ রাস্তাটির বেহাল দশার কারণে ছোট ছোট শিশুদের মাদ্রাসায় যাতায়াতে খুব ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আজিজুল হক জানান, রাস্তাটির আইডি নাম্বার ৫৭৮৯৬৪১৩৫। সংস্কার বা পাকাকরণনের কোন পদক্ষেপ এখন পর্যন্ত আমার স্কিমে নাই। বরাদ্দ পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দুমকি উপজেলা চেয়ারম্যান ড. হারুন অর রশীদ হাওলাদার জানান, ২০১৯ সনে রাস্তাটির জামলা থেকে সেকান্দার আলী দফাদার বাড়ি পর্যন্ত ১কি.মি. রাস্তা পাকাকরণ করা হয়েছে। বাকি ২কি.মি. রাস্তার অর্থ বরাদ্দ হলে পাকাকরণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া