মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০৫ অপরাহ্ন

ছিটমহল বিনিময়ের ৭ বছর আজ

লালমনিরহাট সংবাদদাতা
আপডেট : সোমবার, ১ আগস্ট, ২০২২
ছিটমহল বিনিময়ের ৭ বছর আজ

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ছিটমহল বিনিময়ের পর গেলো সাত বছরে বদলে গেছে সেখানকার মানুষের জীবনযাত্রা । সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের ফলে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে ছিটমহলবাসী অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার দেয়া আশ্রায়ণ প্রকল্পের সেমি পাকা ঘর। নাগরিক সেবার পাশাপাশি নানা সুবিধা পেয়ে উচ্ছ্বসিত বিলুপ্ত ছিটমহলের মানুষ।

২০১৫ সালের ৩১শে জুলাই বাংলাদেশ ও ভারতের অভ্যন্তরে থাকা ১৬২টি ছিটমহল বিনিময় হয়। দু-দেশের মধ্যে ১৯৭৪ সালের সীমান্ত চুক্তি অনুযায়ী, ১১১টি ছিটমহল যুক্ত হয় বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ডের সাথে। এরফলে দীর্ঘ ৬৮ বছর পর নাগরিক পরিচয় পান ছিটমহলের বাসিন্দারা। বাংলাদেশি নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি পান তারা।

তারপর থেকে ছিটমহলবাসীর জীবনমান উন্নয়নে রাস্তাঘাট নির্মাণ, বিদ্যুৎ সরবরাহ, স্বাস্থ্য ও শিক্ষাসহ নানা উন্নয়ন কাজ করে সরকার। ফলে এই সাত বছরে এসব এলাকার আর্থসামাজিক দৃশ্যপট বদলে গেছে। অন্যান্য উন্নয়নের পাশাপাশি দেয়া হয়েছে আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘরও।

বিলুপ্ত ছিটমহলের হতদরিদ্ররা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘর পাওয়ায় এখন স্বাচ্ছন্দ্যে জীবন যাপন করছেন।

চলতি বছরে লালমনিরহাটে ৩হাজার ৭৭টি পরিবারকে আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘর দেয়া হয়েছে। পিছিয়ে পড়া বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ঘর দেয়া হচ্ছে বলে জানালেন, লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর। লালমনিরহাট জেলায় ৫৯টি বিলুপ্ত ছিটমহলে সাড়ে ৮ হাজার পরিবার রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: