শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৩ অপরাহ্ন

গৌরনদীতে যৌতুকের দাবিতে শ্বাসরোধে গৃহবধুকে হত্যা

গৌরনদী (বরিশাল) উপজেলা সংবাদদাতা
আপডেট : রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
গৌরনদীতে যৌতুকের দাবিতে শ্বাসরোধে গৃহবধুকে হত্যা
প্রতিকী ছবি

বরিশালের গৌরনদীতে আড়াই লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে রেশমা আক্তার (২২) নামের এক গৃহবধুকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে মাদকাসক্ত স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন। শনিবার দিবাগত রাত ১০টা থেকে ১টার মধ্যে যে কোন সময় উপজেলার নওপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের বাবা আবু ফকির ও ভাই মো. রাসেল ফকির এ অভিযোগ করেন।

ঘটনার পর গৃহবধুর স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার নওপাড়া গ্রাম থেকে ওই গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। এ সময় গৃহবধুর শ্বাশুড়ি প্রিয়াঝর্ণা খানম (৫০)কে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত রেশমা আক্তারের স্বজনরা জানান, গত তিন বছর পূর্বে উপজেলার কটকস্থল গ্রামের আবু ফকিরের মেয়ে রেশমা আক্তারের সঙ্গে একই উপজেলার নওপাড়া গ্রামের আঃ রাজ্জাক শিকদারের ছেলে নয়ন শিকদারের (২৮) সামাজিকভাবে বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বিয়ের সময় মেয়ে জামাতা নয়ন শিকদারকে ৩ ভরি স্বর্ণালংকারসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল যৌতুক দেয়া হয়। তাদের সংসারে ১৮ মাস বয়সের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

নিহতের বাবা আবু ফকির অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের এক বছর পর মেয়ে জামাতা নয়ন শিকদারকে পান বরজ নির্মাণ করার জন্য এক লাখ টাকা যৌতুক দেয়া হয়। ধারদেনা পরিশোধ করার জন্য মেয়ে জামাতা নয়ন শিকদার গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে মেয়ে রেশমার কাছে আড়াই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিলো। দাবিকৃত যৌতুকের টাকা এনে দিতে অস্বীকার করলে স্বামী নয়ন ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনে গত ৫দিন পূর্বে রেশমাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আমার (বাপের) বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে নয়ন ও তার এক বন্ধু আমার (আবু) বাড়িতে এসে মেয়ে রেশমা আক্তার ও ১৮ মাসের নাতি হাফিজ শিকদারকে জামাতার বাড়িতে নিয়ে যায়। আড়াই লাখ টাকা যৌতুরের দাবিতে শনিবার দিবাগত রাতে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনে রেশমাকে শারীরিক নির্যাতনের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে আত্মহত্যার প্রচারনা চলায়।

আরও পড়ুন : সিরাজগঞ্জে পাচারকালে ৮ টন চাল উদ্ধার আটক ৩

রাত দেড়টার দিকে জামাতার এক প্রতিবেশী মোবাইল ফোনে আমাকে (আবু) মেয়ে রেশমা হত্যার খবর দেয়। আমি (আবু) রোববার ভোরে জামাতার বাড়ি নওপাড়া গ্রামে যাই। মেয়ের লাশ ঘরের খাটের ওপর ফেলে রেখে জামাতা নয়ন ও তার বাড়ির লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি গোলাম ছরোয়ার জানান, খবর পেয়ে ওই বাড়ি থেকে রেশমার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গতকাল রোববার দুপুরে বরিশাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। মাদকাসক্ত স্বামী নয়ন শিকদার যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী রেশমা আক্তারকে কিল-ঘুষি মারার পর শ্বাসরোধে হত্যা করেছে বলে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে।

নিহত রেশমার ১৮ মাসের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। নিহত রেশমার শাশুড়িকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। কয়েকমাস আগে মাদক সেবনের সময় নয়ন শিকদার থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলো। নিহতের বাবা আবু ফকির বাদি হয়ে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: