বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন

কুমিল্লার মেয়র আরফানুল হক মারা গেছেন

কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি
আপডেট : বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২৩
কুমিল্লার মেয়র আরফানুল হক মারা গেছেন

কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি  : 
কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।
বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় এবং সিঙ্গাপুর সময় রাত সাড়ে ৮টায় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।
জানা গেছে, গত বুধবার (৬ ডিসেম্বর) মেয়র আরফানুল হক রিফাতকে অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনি আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। অবস্থা অপরিবর্তিত থাকায় প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে রোববার (১০ ডিসেম্বর) তাকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়।
কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার মেয়রের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি বলেন, ফুসফুসে ইনফেকশন জনিত সমস্যা নিয়ে মেয়র রিফাতকে গত রোববার সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। আমরা চেষ্টা করছি মরদেহ দ্রুত দেশে নিয়ে আসার। জানাজার সময়সূচি মরদেহ দেশে আনার পর জানিয়ে দেওয়া হবে।
কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত গত বছর ১৫ জুনের নির্বাচনে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন। নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে ৫০ হাজার ৩১০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে জয়ী হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল ইসলাম সাক্কু পান ৪৯ হাজার ৯৭৬ ভোট। সাক্কুর চেয়ে ৩৪৩ ভোট বেশি পেয়ে কুমিল্লা সিটির নতুন মেয়র নির্বাচিত হন রিফাত।
গত বছরের ১৫ জুন অনুষ্ঠিত কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে জয়ী হন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত। ২৩ জুন গেজেট প্রকাশিত হয়। ৫ জুলাই মেয়র হিসেবে শপথ নেন তিনি। ৭ জুলাই মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেন আরফানুল হক রিফাত।
তিনিই কুমিল্লা সিটিতে প্রথমবার আওয়ামী লীগ থেকে বিজয়ী মেয়র। এর আগে দুইবার আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কু। তবে বিএনপির বর্জন করা নির্বাচনে যাওয়ায় সাক্কুকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।
ইরফানুল হক রিফাত ভিক্টোরিয়া কলেজে ছাত্রলীগের মাধ্যমে কুমিল্লার রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। রাজনীতি করতে গিয়ে মামলা-হামলার শিকার হয়েছেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বঙ্গবন্ধুর খুনি খন্দকার মোশতাকের জনসভা পণ্ড করার অপরাধে সামরিক আইনে তিন বছরের সাজা হয়েছিল তার। ভিক্টোরিয়া কলেজে ছাত্রলীগ করার সময় জামায়াত-শিবিরের ক্যাডাররা তার হাত-পায়ের রগ কেটে গুরুতর আহত করে। পরে তিনি সিঙ্গাপুরে দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া