বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৩:৪১ পূর্বাহ্ন

কাপাসিয়ায় আসামি ছিনিয়ে নেওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪
কাপাসিয়ায় আসামি ছিনিয়ে নেওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি : 

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় সরকারি কাজে বাধা, পুলিশকে মারধর করে দণ্ডিত আসামি আমান উল্লাহকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ জলিল ও তার এক সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের আদালতে পাঠানো হবে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ভোররাতে টোক ইউনিয়নের বীর উজলী নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তার এমএ জলিল কাপাসিয়া উপজেলার টোক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি উপজেলার উজলী গ্রামের মোহর আলী বেপারীর ছেলে। তার সহযোগী ফাইজ উদ্দিন একই গ্রামের আব্দুছ ছোবহানের ছেলে।

পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নেওয়া দণ্ডিত আসামি আমান উল্লাহ গ্রেপ্তার চেয়ারম্যান জলিলের ভাতিজা এবং আব্দুল জব্বারের ছেলে। ঘটনার পর থেকে আমান উল্লাহ পলাতক রয়েছেন।

কাপাসিয়া থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) রাশেদ মিয়া জানান, সরকারি কাজে বাধা, পুলিশকে মারধর এবং ভ্রাম্যমাণ আদালতের দণ্ডিত আসামিকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনার অভিযোগে টোক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমএ জলিলসহ ২৩ জনের নামে পুলিশ মামলা করে। ওই মামলায় তাকেসহ তার এক সহযোগীকে ভোররাতে গ্রেপ্তার করা হয়।

কাপাসিয়া থানার টোক পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) লুতফুল রহমান বাদী হয়ে এ মামলা করেন। টোক ইউনিয়নের উজলী দিঘির বাজারে পশুর হাট নিয়ে দ্বন্দ্ব নিরসনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এবং পুলিশ কনস্টেবল লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনায় এ মামলা করেন।

কাপাসিয়া থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আজিজুর রহমান জানান, বুধবার (১২ জুন) বিকালে কাপাসিয়ার উজলী দিঘিরপাড় বাজারে ইজারা না নিয়ে গরুর হাট বসে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইজারাদারকে ওই হাট সরিয়ে নিতে বলেন। বাজার সরিয়ে না নেওয়ায় ইউএনও ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে আমান উল্লাহকে দণ্ড দেয়। পরে পুলিশ তাকে নিয়ে যাওয়ার সময় টোক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ জলিলসহ তার লোকজন পুলিশকে মারধর করে বাজারের ইজারাদার আসামি আমান উল্লাহকে ছিনিয়ে নেয়।

কাপাসিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) একে এম লুৎফর রহমান বলেন, ইজারা না নিয়ে বাজার বসানোয় উজলী দিঘিরপাড় বাজারের ইজারাদার আমান উল্লাহকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দেওয়া হয়। পরে তাকে নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের কাছ থেকে আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে। ওই ঘটনায় এমএ জলিল চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া