বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৭:০৩ পূর্বাহ্ন

আসন সমঝোতাসহ অনেক বিষয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে আলোচনা চলছে : চুন্নু

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
আসন সমঝোতাসহ অনেক বিষয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে আলোচনা চলছে : চুন্নু

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, আসন সমঝোতাসহ অনেক বিষয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে আলোচনা চলছে। আজকে আরও একটি বৈঠক হবে, কালকে মনে হয় একটি ভালো খবর দিতে পারবো।

বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর ) জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা দফায় দফায় আওয়ামী লীগের বৈঠক করছি এ কথা সত্য। নির্বাচন পর্যন্ত এই ধারা অব্যাহত থাকবে। আমরা ভোটের মাঠে বিরোধী হলেও পরিবেশ সুষ্ঠু করার জন্য একযোগে কাজ করতে চাই। ভোটের মাঠে যেহেতু আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি প্রধান দুই দল। তাই মাঠে গরম কথা হলেও আলোচনা অব্যাহত রাখা হবে।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ কেনো জাতীয় পার্টিকে অবিশ্বাস করছে তা তারা ভালো বলতে পারবেন। আমরা তাদের সঙ্গে যখন বৈঠক হচ্ছে তখন এমন মনে হয়নি। খুবই আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। আমাদের মধ্যে আস্থার সংকট নেই, আমরা শতভাগ বিশ্বাসী।

আওয়ামী লীগের কাছে জাপা আসন চায়নি জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা জনগণের কাছে আসন চায়। কোনো দলের কাছে চাই না। আওয়ামী লীগের সঙ্গে ভোটের পরিবেশ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আপনারা যেটা ইঙ্গিত দিচ্ছেন, সেটা নিয়ে যে আলোচনা হয়নি তা নয়, অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। আজ রাতেও আলোচনা হবে। আগামীকাল হয়তো নির্বাচনের বিষয়ে আরও কিছু তথ্য দিতে পারবো। বৈঠক যেহেতু নির্বাচনকেন্দ্রিক, তাই ৭ জানুয়ারির আগে দফায় দফায় বৈঠক চলবে।

তিনি বলেন, সরকারের অধীনে ভোট হচ্ছে না। এটা আপনাদের ভুল ধারণা। নির্বাচন হচ্ছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে। নির্বাচনকালীন সময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, প্রশাসনের কর্মকর্তাসহ যারাই নির্বাচনী কাজে জড়িত, সবাই ইসির অধীনে।

জাপার এ নেতা বলেন, দেশে কখনোই শতভাগ সুষ্ঠু ভোট করা সম্ভব হয় নাই। নির্বাচন পদ্ধতি পরিবর্তন করে আনুপাতিক হারে ভোট করা হলেই কেবল শতভাগ ভোট সুষ্ঠু করা সম্ভব।

নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার গুঞ্জন প্রসঙ্গে বলেন, আমরা নির্বাচন করার জন্য ভোটে এসেছি। সরে যাওয়ার প্রশ্নই আসে না। আমরা ১৫১ আসন জিতে সরকার গঠন করতে চাই।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নির্বাচন কমিশন যে আদেশ দিয়েছে, তার সঙ্গে দ্বিমত হওয়ার কোন কারণ নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি। আগামী ১৮ ডিসেম্বর থেকে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নির্বাচনী প্রচারণা ছাড়া কোনো সভা-সমাবেশ করা যাবে না। ইসির এমন চিঠির নির্দেশনা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। জাপা মহাসচিব বলেন, আমার মনে হয় সিদ্ধান্ত সঠিক হয়েছে। আমরা এতে কোন সমস্যা দেখছি না।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য শফিকুল ইসলাম সেন্টু, ভাইস চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, যুগ্ম মহাসচিব বেলাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল খায়ের প্রসুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া