বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন

আমরা কাউকে নিশ্চিহ্ন করতে চাচ্ছি না : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : সোমবার, ৬ নভেম্বর, ২০২৩
আমরা কাউকে নিশ্চিহ্ন করতে চাচ্ছি না : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

আমরা কাউকে নিশ্চিহ্ন করতে চাচ্ছি না মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপির নিশ্চিহ্ন হওয়ার জন্য অন্য কাউকে লাগবে না; তারেক রহমানই যথেষ্ট।

সোমবার (৬ নভেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্টস ফোরামের সঙ্গে মতবিনিময়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেছেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেখুন, আমরা কাউকে নিশ্চিহ্ন করতে চাচ্ছি না। যাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। যেসব নেতাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, তাদেরকে আগুন সন্ত্রাসের হুকুমদাতা, হোতা ও অর্থদাতা হিসেবে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। ওয়ার্ড পর্যায়ে টেলিফোন করে বিএনপি শীর্ষ নেতারা, বিশেষ করে তাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন বলছেন আগুন সন্ত্রাস চালাতে। সেগুলোর তথ্যপ্রমাণ আমাদের কাছে আছে।

তিনি বলেন, তারা ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের পয়সা দিয়ে চোরাগোপ্তা হামলা করাচ্ছে। এটি কোনো রাজনীতি না, কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি নয়। যারা এ কাজ করছেন, এর সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট, তাদের বিরুদ্ধে কেবল সরকার না, জনগণও ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

বিএনপি নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন করলে তাতে কোনো বাধা কিংবা আপত্তি নেই জানিয়ে তিনি আরও বলেন, তারা এতদিন সবকিছু করেছে। কিন্তু সমাবেশ শুরুর আগেই তারা প্রধান বিচারপতির বাসভবন, জাজেস কমপ্লেক্স এবং হাসপাতালে হামলা চালিয়েছে ও পুলিশ হত্যা করেছে। এরপর তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমাদের কয়েক লাখ নেতাকর্মী দেড় কিলোমিটার দূরে ছিলেন। একজনও তাদের সমাবেশের দিকে যাননি।

জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে হাছান মাহমুদ জানান, পৃথিবীতে তাপমাত্রা বেড়েছে, এ বছর আরও বাড়বে। একইসঙ্গে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে আমরা যেটি দেখতে পাচ্ছি, যেখানে বন্যা হতো না… সেখানেও বন্যা হচ্ছে। এ পরিস্থিতি আমাদের সচেতনতা যে পর্যায়ে থাকার কথা ছিল সেটি হয়েছে বলে আমার মনে হচ্ছে না। সেটি যদি হতো তাহলে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বাঁধতো না, যুদ্ধের জন্য বিলিয়ন-বিলিয়ন ডলার খরচ হতো না।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরাম পরিবেশের বিষয়ে মানুষকে অবহিত করার ক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন কবে আসছে। সে কারণে এ ফোরামের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে এবং ফোরাম সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে, সেজন্য আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি কাওসার রহমান বলেন, বিশ্বজুড়ে উত্তাপের তাণ্ডবের মধ্যে এবারের জলবায়ু সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এজন্য এ সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

এতে আরও বক্তব্য রাখেন- সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের সদস্য রফিকুল ইসলাম রতন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া