মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০৩:২৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
১৯ জুন থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সংবাদ সম্মেলনে দ্রুত বিচার চাইলেন পরীমনি চলে গেলেন বিশ্বের ‘সবচেয়ে বড় পরিবার’ প্রধান আদালত ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না খুললে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি বিয়ে করেছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ক্ষমাপ্রার্থনা লে. জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ নতুন সেনাপ্রধান দৃষ্টিনন্দন ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারে সামরিক প্লেন বিধ্বস্তে ১২ জন নিহত চোখের পানিতে শেষ বিদায় প্রিয় মাহুতকে (ভিডিও) হ্যারি-মেগানের কন্যার জন্মে রানির শুভেচ্ছা-অভিনন্দন দৌলতদিয়ায় ৭ নং ফেরিঘাটে ভাঙন শ্রাবন্তীর সঙ্গে সংসার করতে চেয়ে আদালতের রোশন চিলমারী বন্দর নিয়ে গান গাইলেন প্রধানমন্ত্রী করোনার জরুরি চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গরিবের বন্ধু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারতীয় ঋণে রেলের তিন প্রকল্প ঝুলছে এক দশক কন্যা সন্তানের বাবা মা হলেন হ্যারি মেগান সমালোচনাকে থোরাই কেয়ার করেন রাইমা গাজীপুরে শীতলক্ষ্যার মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

অলিম্পিক বাতিলে জাপানের ক্ষতি ১৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার

ক্রীড়া প্রতিবেদক
আপডেট : বুধবার, ২৬ মে, ২০২১
অলিম্পিক বাতিলে জাপানের ক্ষতি ১৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার
সংগৃহীত ছবি

টোকিওতে অনুষ্ঠিতব্য গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক ও প্যারাঅলিম্পিক গেমস বাতিল হলে জাপানের প্রায় এক দশমিক ৮১ ট্রিলিয়ন ইয়েন (১৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার) ক্ষতি হবে।

নমুরা রিসার্চ ইন্সটিটিউটের (এনআরআই) এই পূর্বাভাষের বরাত দিয়ে জাপান টাইমস গতকাল মঙ্গলবার জানিয়েছে, দুমাসেরও কম সময় পর (২৩ জুলাই) অলিম্পিক গেমস শুরু হওয়ার কথা থাকলেও জাপানের জন্য এখন বড় দুশ্চিন্তার কারণ বাড়তে থাকা করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হার।

গবেষণা সংস্থাটি সতর্ক করেছে যে অলিম্পিক গেমসের কারণে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আবারও বেড়ে গেলে এর থেকে অর্থনীতিতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরও অনেক বেশি হতে পারে।

এনআরআই-এর নির্বাহী অর্থনীতিবিদ টাকাহিদে কিউচি বলেন, ‘অলিম্পিক বাতিল হলেও তাতে দেশব্যাপী জরুরি অবস্থা ঘোষণার চেয়ে অর্থনৈতিক ক্ষতি কম হবে।’

এনআরআই-এর হিসাব অনুযায়ী, দর্শকবিহীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হলে এক দশমিক ৬৬ ট্রিলিয়ন ইয়েন আয় হবে। আর স্থানীয় দর্শকদের এ আয়োজনে অংশ নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হলে এর সঙ্গে আরও ১৪৬ দশমিক আট বিলিয়ন ইয়েন যোগ হতে পারে।

বিভিন্ন সমীক্ষায় জাপানের জনমানুষের মনে মহামারির সময়ে অলিম্পিক আয়োজন নিয়ে শঙ্কার ব্যাপারটি উঠে এসেছে। মে মাসের মাঝামাঝিতে পরিচালিত কিয়োডো নিউজের সমীক্ষায় জানা গেছে, ৬০ শতাংশ মানুষ মনে করেন অলিম্পিক ও প্যারাঅলিম্পিক বাতিল করা উচিৎ।

জাপানের কিছু অংশে, বিশেষ করে জনবসতি পূর্ণ টোকিও ও ওসাকা শহরে আবারও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে গেছে। এসব এলাকায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

দেশটির টিকাদান কর্মসূচী বেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। তবে তা এখনও উন্নত বিশ্বের দেশগুলো, যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে।

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের নাগরিকদের জাপান ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছে। সেই সঙ্গে ট্র্যাভেল এলার্ট সর্বোচ্চ লেভেল চার এ উন্নীত করেছে।

ব্যাঙ্ক অব জাপানের নীতিমালা সংক্রান্ত বোর্ডের সাবেক সদস্য কিউচি বলেন, ‘বিভিন্ন পূর্বাভাষ বলছে অলিম্পিকের আয়োজন করা আর না করার ব্যাপারটি। আর আয়োজন করলেও সেখানে দর্শক থাকবে কি থাকবে না, তা সংক্রমণের ঝুঁকির ভিত্তিতেই নির্ধারণ করা উচিৎ। অর্থনৈতিক ক্ষতির হিসাবের ভিত্তিতে নয়।’

২০২১ সালের প্রথম তিন মাসে জাপানের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড পাঁচ দশমিক এক শতাংশ কমে গেছে। আর বিশেষজ্ঞদের মতে, এপ্রিল থেকে জুন মাসে তা আরও সংকুচিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

গত সপ্তাহে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট জন কোটস বলেন, টোকিওতে জরুরি অবস্থা বজায় থাকলেও ২৩ জুলাই থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আবহাওয়া

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: